কেন্দ্রে বিজেপি সরকার ক্ষমতায় আসার পরেই নাগরিকত্ব ইস্যুতে উঠেছিল কতকগুলি প্রশ্ন। অসমে ইতিমধ্যেই করা হয়েছে এনআরসি বা জাতীয় নাগরিকপঞ্জি। তাতে বাদ পড়েছে প্রায় ৪০ লক্ষ মানুষের নাম। ফলে এনআরসির স্বচ্ছতা  নিয়ে উঠছে প্রশ্ন। পাশাপাশি যাঁদের বোটে সরকার তৈরি হল তাঁরাই কেন নাগরিকত্বের মর্যাদা হারালেন তা নিয়েও বিস্তর জলঘোলা হয়েছে। 

আরও পড়ুন: '৫০টা খুনের পর ছেড়ে দিয়েছিলাম গোনা', কুখ্যাত সিরিয়াল কিলার চিকিৎসকের স্বীকারোক্তিতে হতবাক পুলিশ

নাগরিকত্ব ইস্যু ও এনআরসি নিয়ে গত বছরের শেষ থেকে দেশজুড়ে আন্দোলনও হয়েছে। করোনা সংক্রমণের কারণে সেই আন্দোলন স্তিমিত হলেও বিষয়টি নিয়ে চুপ নেই বিরোধী শিবির। একুশে জুলাইয়ের ভার্চুয়াল সভা থেকেই সেই বিষয়ে ফের একবার কেন্দ্রের বিজেপি সরকারকে হুঁশিয়ারি দিয়েছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। 

আরও পড়ুন: মণিপুরে মায়ানমার সীমান্তে জঙ্গিদের আইইডি বিস্ফোরণ, শহিদ হলেন অসম রাইফেলসের ৩ জওয়ান

এখন প্রশ্ন উঠছে ভারতের নাগরিকত্ব প্রমাণের তাহলে উপায় কী? ভোটার কার্ডই কি নাগরিকত্বের প্রমাণ নয়। জাতীয় নির্বাচন কমিশনের কাজে এনিয়ে প্রশ্ন করেছিলেন এক সমাজকর্মী। তারে নির্বাচন কমিশন উত্তর দিয়েছে, সংবিধানের ৩২৬ ধারা অনুযায়ী একমাত্র নাগরিক হলে তবেই ভোটার কার্ড পাওয়া যায়।

 

 

সমাজকর্মী প্রাণোজিৎ দে  নির্বাচন কমিশনের কাছে জানতে চেয়েছিলেন ভোটার কার্ড কি নাগরিকত্বের প্রমাণ হতে পারে? তথ্য জানার আইন-২০০৫ মোতাবেক করা এই প্রশ্নের জবাবে নির্বাচন কমিশন জানিয়েছে, ভারতে নাগরিক হলেই একমাত্র বোটার কার্ড পাওয়া যায়। সগজ করে বলতে গেলে ভোটার কার্ডই দিচ্ছে নাগরিকত্বের প্রমাণ।