বুধবার দক্ষিণ কাশ্মীরের সোপিয়ানের আপেলবাগান উত্তপ্ত হয়েছিল সেনা-জঙ্গি সংঘর্ষে। এবার বৃহস্পতিবার ভোরে  বদগামে শুরু হয় দুই তরফের সংঘর্ষ।  সূত্রের খবর, নিরপত্তা বাহিনীর তল্লাশি অভিযানের সময় বদগামের পাঠানপোরায় জঙ্গিরা আচমকা গুলি চালায়। তারপরেই একটি বাড়ি ঘিরে ফেলে বাহিনী। শুরু হয়ে যায় দুই তরফের গুলির লড়াই। 

 

চলতি  সপ্তাহের মধ্যে এটি  উপত্যকায় চতুর্থ এনকাউন্টার সেনার।আগের তিনটি এনকাউন্টারে বড়সড় সাফল্য পেয়েছে বাহিনী। ১৪ জঙ্গিকে নিকেশ করেছে তারা। তার মধ্যে বুধবার সকালেই নিরাপত্তা বাহিনীর গুলিতে মারা পড়েছে ৫ জঙ্গি। 

আরও পড়ুন: করোনা সংক্রমণে এবার ব্রিটেনকে ছুঁয়ে ফেলতে চলল ভারত, দেশে মৃতের সংখ্যা ছাড়িয়ে গেল ৮ হাজার

কাশ্মীর পুলিশ সূত্রে খবর, এবারও সূত্র মারফত খবর মেলে যে বডগামের পাঠনপোরায় জঙ্গিরা লুকিয়ে রয়েছে। এরপরই পুলিশ ও সেনার যৌথ দল ওই এলাকায় অভিযানে যায়। পুলিশের উপস্থিতি টেরে পেয়ে জঙ্গিরা গুলি বর্ষন শুরু করে। বাহিনীও পাল্টা গুলি চালায়। 

পুলিশ সূত্রে দাবি করা হয়েছে ওই বাড়িতে লুকিয়ে ছিল জয়েশ ই মহম্মদের ২ জঙ্গি।  তবে বেশ কিছুক্ষণ সংঘর্ষ চলার পর ২  জঙ্গিই গ্রেনেড ছুড়তে ছুড়তে পালিয়ে যায় বলে সূত্রের  খবর।  তাদের আস্তানা থেকে একটি পিস্তল, একে ফর্টি সেভেন রাইফেলের ৬টি ম্যাগাজিন উদ্ধার হয়েছে।  

আরও পড়ুন: বাড়িতেই অগ্নিদগ্ধ হয়ে মৃত্যু মা ও ৩ সন্তাদের , ২ শিশুর ঝলসানো শরীর মিলল বাক্সবন্দি অবস্থায়

কাশ্মীর পুলিশের এক কর্তা জানান, সম্প্রতি উপত্যকায় একাধির অভিযানে নিরাপত্তা বাহিনী বড়সড় সাফল্য পেয়েছে। দু-সপ্তাহে ২৭ জঙ্গিকে খতম করেছে বাহিনী। এর মধ্যে শেষ তিনটি এনকাউন্টারে ১৪ জঙ্গিকে নিকেশ করা হয়েছে। নিহতদের অনেকেই লস্কর-ই-তৈবা ও হিজবুল মুজাহিদিনের সদস্য। বুধবারই সোপিয়ান জেলায় একটি এনকাউন্টারে ৫ জঙ্গির নিহত হওয়ার খবর মিলেছিল। সোপিয়ানের সুগু গ্রামে ওই এনকাউন্টারে খতম হওয়া ৫ জঙ্গিই  হিজবুল মুজাহিদিনের সদস্য। এর আগে রবিবার সোপিয়ান জেলার রেবানে ৫ জঙ্গিকে খতম করেছিল বাহিনী। পরদিনই ফোর সোপিয়ানে গুলির লড়াইয়ে ৪ জঙ্গি নিহত হয়।

এদিকে চরিত্রে বদল ঘটল না পাকিস্তানের। ফের একবার জম্মু-কাশ্মীর সীমান্তে যুদ্ধবিরতি লঙ্ঘন করল পাকিস্তান।  সীমান্তে পাক সেনার ছোঁড়া গুলিতে এক সেনা জওয়ানের শহিদ হওয়ার খবর পাওয়া গিয়েছে। জখম হয়েছেন এক গ্রামবাসীও।কাঁধে গুরুতর জখম নিয়ে হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন তিনি।

 

 

সূত্রের খবর, বুধবার রাত থেকে রাজৌরি ও পুঞ্চ জেলা বরাবর তারকুন্ডি সেক্টরে সংঘর্ষ বিরতি লঙ্ঘন করে পাকিস্তান। এলোপাথারি গুলি ছুঁড়তে থাকে তারা। পালটা জবাব দেয় ভারতও। কোনওরম উসকানি ছাড়াই পাকিস্তান যুদ্ধবিরতি লঙ্ঘন করছে বলে খবর। বৃহস্পতিবারবার ভোররাত পর্যন্ত দুপক্ষের মধ্যে গোলাগুলি চলে।