কাশ্মীরে জঙ্গিদমন অভিযান জোড়কদমে চালাচ্ছে ভারতীয় সেনা। মঙ্গলবার ভোরেও সেই নিয়মের অন্যথা হল না। এবার জম্মু-কাশ্মীরের পুলওয়ামার মারোয়াল এলাকায় অভিযান চালাল ভারতীয় সেনা, কাশ্মীর পুলিশ ও সিআরপিএফের যৌথ বাহিনী।

আরও পড়ুন: ২৫ সেপ্টেম্বর থেকে ফের দেশে ৪৬ দিনের কঠোর লকডাউন, অবস্থান স্পষ্ট করল মোদী সরকার

গোপনসূত্রে খবর পেয়ে সোমবার গভীর রাতেই পারিগ্রাম এলাকায় অভিযান শুরু করে নিরাপত্তা বাহিনী। তল্লাশি অভিযান শুরু হতেই হামলা চালায় লুকিয়ে থাকা জঙ্গিরা। পাল্টা গুলি চালাতে থাকে নিরাপত্তা বাহিনীও। ২-৩ জন জঙ্গি মারোগ্রামে আটকে রয়েছে বলে খবর রয়েছে বাহিনীর কাছে। শেষ পাওয়া খবর পর্যন্ত এই অভিযান এখনও চলছে।

 

সতসকালে এই এনকাউন্টার নিয়ে জম্মু-কাশ্মীর পুলিশের তরফে ট্যুইট করা হয়েছে। ওই এলাকায় ২-৩ জন জঙ্গি আটকে পড়েছে। পুলিশ ও নিরাপত্তা বাহিনীর সঙ্গে তাদের গুলি যুদ্ধ চলছে। এক পুলিশ আধিকারিক জানিয়েছেন, জঙ্গিদের লুকিয়ে থাকার সম্ভাব্য এলাকা নিরাপত্তারক্ষীরা ঘিরে ফেলেছে। 

আরও পড়ুন: প্রত্যাশার চাপ না নিতে পেরে আত্মঘাতী একের পর এক নিট পরীক্ষার্থী, কেন্দ্রকেই বিঁধছে বিরোধী শিবির

গত সপ্তাহেই ৪ সেপ্টেম্বর বারামুলায় এনকাউন্টারে ৩ জঙ্গিকে খতম করেছে সেনা। গোপন সূত্রে জঙ্গি লুকিয়ে থাকার খবর পেয়ে পাট্টান এলাকার ইয়েডিপোরা অঞ্চলে গত শুক্রবার তল্লাশি অভিযান শুরু করে সেনাবাহিনী। উপত্যকার পুলিশের সঙ্গে এটাও ছিল ভারতীয় সেনার যৌথ অভিযান।

সেনা সূত্রে খবর, গুলির লড়াই চলাকালীন দুই পরিবারের মোট ১২ জন সদস্যকে বন্দি বানিয়েছিল জঙ্গিরা। তাদের মধ্যে ছিলেন মহিলা এবং শিশুরাও। যৌথ বাহিনীর দীর্ঘক্ষণের চেষ্টায় শেষ পর্যন্ত  বন্দিদের উদ্ধার করে নিরাপদ আশ্রয়ে নিয়ে গিয়েছেন নিরাপত্তারক্ষীরা। জঙ্গি নিধনের পাশাপাশি আধুনিক আগ্নেয়াস্ত্রও ঘটনাস্থল থেকে উদ্ধার করেছিল সেনা।