কেন্দ্রীয় সরকারে বিরুদ্ধে বেসরকারিকরণের অভিযোগ তুলে যখন সরব হয়েছে বিরোধী রাজনৈতিকদলগুলি তখনই নেটদুনিয়া ভাইরাল রয়েছে একটি  ছবি। যা আগুনে আরও ঘি ঢেলে দিয়েছে। রেলওয়ে প্ল্যাটফর্ম টিকিটের একটি ছবিতে লেখা রয়েছে 'আদামি রেলওয়ে'। তাতে বলা হয়েছে রেলওয়ে এখন আমাদের সম্পত্তি।পুনের রেল স্টেশনের প্ল্যাটফর্ম টিকিটের দাম ৫০ টাকাও ধার্য করা হয়েছে ওই টিকিটে। সঙ্গে রয়েছে সাধারণ তথ্য, তারিখ, টিকিটের নম্বর। 

 

ভাইরাল ছবি 
সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হওয়ার পরই ছবি ঘিরে প্রশ্ন উঠতে শুরু করে তবে কি এবার ভারতীয় রেলেওয়ে-তেও পড়ল আদানিদের হাত। কারণ ইতিমধ্যেই বেশ কয়েকটি বিমান বন্দরের রক্ষণাবেক্ষণের দায়িত্ব হাতে পেয়েছে আদানিরা। অনেকেই রেলওয়ে-কে আদানি গ্রুপের কাছে বিক্রি করে দেওয়ার জন্য সমালোচনা করেছেন। অনেকে আবার বলেছেন বেসরকারিকরণের করুণ পরিণতি - যেখানে ১০ টাকার প্ল্যাটফর্ম টিকিটের দাম হয়ে যায় ৫০ টাকা। আর এই ছবিকে কেন্দ্র করে অনেকেই সরকারি সম্পত্তি বেসরকারি হাতে তুলে দেওয়ার জন্য আরও একবার কেন্দ্রের বিরুদ্ধে তীব্র সমালোচনা শুরু করেছেন।

আসল সত্যি কী 
মহামারির এই সময় কেন্দ্রীয় সরকার প্ল্যাটফর্ম টিকিটের দাম বাড়িয়েছ। স্টেশনগুলিতে ভিড় কমাতে কেন্দ্রীয় সরকার এই সিদ্ধান্ত নিয়েছিল। জনৈক্য এক ব্যক্তির সোশ্যাল মিডিয়ায় একটি প্রশ্নের জবাবে রেলমন্ত্রকের মুখপাত্রর পক্ষ থেকে দেওয়া উত্তরে বলা হয়েছিল পুনের রেল স্টেশনে প্ল্যাটফর্ম টিকিটের দাম বাড়ান হয়েছে। করোনা-মহামারির কারণে প্ল্যাটফর্মে ভিড় এড়াকে ও নিরাপদ শারীরিক দূরত্ব বজায় রাখার কারণেই এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। এখনও পুনের প্ল্যাটফর্ম টিকিটের দাম ৫০ টাকাই রয়েছে। আর রেলসূত্রে খবর টিকিট দেওয়ার ক্ষেত্রেও কিছুটা কঠোর রেল প্রশাসন। 


 কিন্তু ছবিটিও ফেক
কারণ আসল ছবির একটি নমুনাও আমাদের হাতে এসেছে। যেখানে দেখা যাচ্ছে আসল ছবিতে লেখা রয়েছে ভারতীয় রেল। আর নকল ছবিতে সেই জায়গায়ই বসান হয়েছে আদানি রেল। 

তবে এটাই প্রথম নয়। এর আগেও ভারতীয় রেলের বেসরকারিকরণের জন্য শিল্পপতি গৌতম আদানি ও তাঁর সংস্থাকে নানাভাবে জড়ান হয়েছে। সোশ্যাল মিডিয়ায় ভুয়ো ছবি পোস্ট করে বারাবার দাবি করা হয়েছে ভারতীয় রেলকে তুলে দেওয়া হচ্ছে আদানিদের হাতে।