কংগ্রেস নেতা রাহুল গান্ধি, সিপিএম নেতা সীতারাম ইয়েচুরি, এনসিপি নেতা শরদ পাওয়ার-সহ বিরোধী রাজনৈতিক দলের পাঁচ প্রতিনিধি বুধবার রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দের সঙ্গে দেখা করেন। কেন্দ্রীয় সরকারের আনা নতুন তিনটি কৃষি আইন ফিরিয়ে নেওয়ার অনুরোধ করেন তাঁরা। বিরোধী রাজনৈতিক দলের প্রতিনিধিরা মোদী সরকারের আনা কৃষি আইনকে কৃষক বিরোধী বলেও দাবি করেছেন। বিরোধী রাজনৈতিক দল ও কৃষকদের সঙ্গে আলোচনা না করেই বিলগুলি সংসদে আনা হয়েছিল বলেও অভিযোগ করেন তাঁরা। 

রাষ্ট্রপতির সঙ্গে বৈঠক থেকে বেরিয়ে রাহুল গান্ধী বলেন, আজ যদি কৃষকরা কেন্দ্রীয় সরকারের বিরুদ্ধ সরব না হয় তাহলে তাঁদের চিরকালের জন্য চুপ করে যেতে হবে। বিরোধীদের সঙ্গে কোনও আলোচনা না করেই কৃষবিল গুলি সংসদে পাশ করা হয়েছে বলেও অভিযোগ করেন তিনি। পাশাপাশি রাহুল গান্ধী এদিন সোশ্যাল মিডিয়ায় বার্তা দিয়েও কেন্দ্রের সমালোচনায় সরব হন। তিনি বলেন কৃষকরা বুঝতে পেরেছে মোদী সরকার তাঁদের সঙ্গে বিশ্বাঘতকতা করেছে। এখন কৃষকরা আর পিছিয়ে যাবে না। কারণ তারা বুঝে গেছে এখন যদি তারা চুপ করে যায় তাহলে তাদের ভবিষ্যৎ বলে আর কিছু থাকবে না।কৃষকদের অপমান করা হয়েছে বলেই আজ তারা রাস্তায় নেমে প্রতিবাদ জানাচ্ছে বলেও জানিয়েছন তিনি।  তিনি আরও বলেন প্রধানমন্ত্রী বলেছেন এই আইনগুলি কৃষকদের স্বার্থ রক্ষা করবে। কিন্তু তাহলে আজ কৃষকরা রাস্তায় নেমেছে কেন? দেশের কৃষকদেক সামনে কোনও শক্তি দাঁড়াতে পারবে না বলেও দাবি করেছেন তিনি। 

বিরোধী রাজনৈতিক দলের নেতারা বলেছেন তাঁরা রাষ্ট্রপতির কাছে বিলটি ফিরিয়ে নেওয়ার আবেদন জানিয়েছেন। কৃষকরা সরকারের প্রতি বিশ্বাস হারিয়েছে। আর সেই কারণেই এই শীতের রাতে কয়েক হাজার মানুষ রাস্তায় কাটাচ্ছে। তারা আহিংস আন্দোলন করে সরকারের সহানুভূতি আদায় করার চেষ্টা করছে।