একদল দর্শক সিনেমা হলে জাতীয় সঙ্গীত হওয়ার সময়ে না দাঁড়ানোয় হলের মধ্যেই তাঁদের হেনস্তা করা হয়েছিল। এবার বিজেপি শাসিত কর্নাটক রাজ্যের পুলিশ ওই না দাঁড়ানো দর্শকদের বিরুদ্ধে বৃহস্পতিবার স্বতঃপ্রণোদিত হয়ে একটি মামলা করল। বেঙ্গালুরুর সুব্রমণ্য নগর থানায় এফআইআর দায়ের করা হয়েছে। তবে তাতে আসামি হিসেবে কারোর নাম উল্লেখ করা হয়নি।

এফআইআর-এর বয়ান অনুসারে, বেঙ্গালুরু পুলিশ ওই দর্শকদের বিরুদ্ধে জাতীয় সম্মান আইন, ১৯৭১ (প্রতিরোধ)-এর আওতায় মামলাটি করেছে। অথচ, সুপ্রিম কোর্টের আদেশ অনুসারে, সিনেমা হলের অভ্যন্তরে জাতীয় সংগীত চলাকালীন দাঁড়ানো বাধ্যতামূলক নয়।

ঘটনাটি সূত্রপাত গত ২৩ অক্টোবর। বেঙ্গালুরুর পিভিআর ওরিয়ন মলে আসুরান নামে এক তামিল চলচ্চিত্রের প্রদর্শনীর সময় ওই ঘটনা ঘটে। এই নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় ব্যাপক সোরগোল পড়ে। ঘটনার একটি ভিডিও ভাইরাল হয়। তাতে দেখা গিয়েছিল কন্নড় অভিনেতা অরুণ গৌড়ার নেতৃত্বে বেশ কয়েকজন চলচ্চিত্রকার দু'জন পুরুষ এবং দু'জন মহিলাকে য়ারপরনাই হেনস্থা করে। 'দেশের জন্য ৫২ সেকেন্ড না দেওয়া'র জন্য তাদের 'পাকিস্তানি সন্ত্রাসবাদী' বলে অভিহিত করা হয়।

গৌড়া ক্যামেরা পার্সনকে ডেকে বারবাহর করে ওই চারজনকে দেখাতে থাকেন। সঙ্গে চিৎকার করে বলেন, 'দেশের জন্য ৫২ সেকেন্ড দাঁড়াতে পারেন না, কোন সাহসে এখানে বসে ৩ ঘন্টার সিনেমা দেখবেন?' গৌড়ার সমর্থনে আরও একজন এগিয়ে এসে বলেন, 'সেনারা কাশ্মীরে আমাদের জন্য লড়াই করছে এবং আর আপনারা এখানে বসে আছেন। জাতীয় সঙ্গীতের সময়ও দাঁড়ালেন না। এখান থেকে বেরিয়ে যান।' ভিডিওটি কন্নড় অভিনেত্রী বিভি ঐশ্বর্য ফেসবুকে পোস্ট করেছিলেন। পরে অবশ্য ভিডিও ক্লিপটি সরিয়ে নেওয়া হয়।

বেঙ্গালুরুতেই চলতি বছরের মে মাসে, সিনেমা হলে জাতীয় সঙ্গীত চলার সময় উঠে দাঁড়াতে না চাওয়ায় ২৯ বছর বয়সী এক ব্যক্তিকে গ্রেফতার করা হয়েছিল। তারও আগে সঞ্জয়নগরের এক বাসিন্দা সোশ্য়াল মিডিয়ায় অভিযোগ করেছিলেন জাতীয় সঙ্গীত চলাকালীন বসে থাকার কারণে আইনক্স সিনেমা হলে একদল দুষ্কৃতী তাঁর উপর হামলা করেছিল।