প্রধানমন্ত্রীর নিজের নির্বাচনী কেন্দ্র বারানসী। বিশ্বের এই অন্যতম প্রচীন শহরও এখন বায়ুদূষণে কবলে বেহাল অবস্থায় রয়েছে। দিনকে দিন আরও খারাপ হচ্ছে অবস্থা। এই অবস্থা একদিন আগেই দেখা গিয়েছিল বারানসীর বিখ্যাত হর-পার্বতী মন্দিরে দেব-দেবীদের মুখে দূষণরোধী মুখোশ পরানো হয়েছে। কিন্তু বাতাসের গুণমান  আরও খারাপ হতেই এবার শিব লিঙ্গেও জড়ানো হল দূষণরোধী মুখোশ।

বৃহস্পতিবার সকালে বারানসীর বাতাসের গুণমান সূচক ছিল ২২৬। যা সেন্ট্রাল পলিউশন কন্ট্রোল বোর্ডের ভাগ অনুসারে 'খারাপ' ক্য়াটেগরিতে পড়ে। আর এরপরই বারানসীর তারকেশ্বর মহাদেব মন্দিরে শিবলিঙ্গে পরানো হল দূষণরোধী মুখোশ।

মন্দিরের এক সেবায়েৎ জানিয়েছেন, বারানসীর বাতাসের গুণনাম দিন দিন খারাপ হচ্ছে। তাই আমাদের উচিত দেবদেবীর খেয়াল রাখা। ভোলেবাবাকে বিষবায়ুর হাত থেকে রক্ষা করতেই শিবলিঙ্গে দূষণরোধী মুখোশ পরানো হয়েছে। কারণ ভক্তরা মনে করচেন, তিনি সুরক্ষিত থাকলেই তাঁরা সুরক্ষিত থাকবেন।

শিব বা মহাদেবকে বলা হয় অনাদি। অর্থাৎ যার আদি বা অন্ত নেই। পুরাকালে শিব-এর কোনও মূর্তরূপ ছিল না। তেজ প্রকাশে তাঁর লিঙ্গের পুজো করা শুরু হয়েছিল। সেই আদি অনন্তহীন তেজ রূপও কি আদৌ দূষণে কাতর হয়? এই প্রশ্ন তুলছেন অনেকেই।

তবে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীরও নিজের কেন্দ্রের এই ক্রমবর্ধমান দূষণ প্রতিরোধে ব্যবস্থা নেওয়া উটিত, বলে মনে করছে বারানসী। শহরের রাস্তায় বের হলেই চোখ-মুখ জ্বালা করছে। শ্বাস নিতে কষ্ট হচ্ছে। দীপাবলির পর হাসপাতালগুলিতে আর বেড ফাঁকা নেই বলেই জানা যাচ্ছে।