প্রবল বৃষ্টিপাতের আঁচ পড়েছে দক্ষিণ-পশ্চিম ভারতে। লাগাতার বৃষ্টিপাতের জেরে হওয়া বন্যার কারণে দেশের একাধিক রাজ্যে প্রাণ গিয়েছে অসংখ্য মানুষের। তবে বন্আযর কারণে মৃত্যু মিছিল এখনও অব্যাহত। সূত্রের খবর, পশ্চিমবঙ্গ, উত্তরাখণ্ড, গুজরাত ও অন্ধ্রপ্রদেশে এখনও পর্যন্ত মৃত্যু হয়েছে ২২৭ জনের। এদের সকলেরই মৃত্যু হয়েছে প্রবল বন্যায়, বাজ পড়ে বা ভূমিধসে। 

দক্ষিণ ভারতে সবথেকে ক্ষতিগ্রস্থ রাজ্যের মধ্যে অন্যতম হল কেরল। সেখানে বন্যার কারণে এখনও পর্যন্ত মৃত্যু হয়েছে ৮০ জনের। দিল্লির মৌসম ভবন সূত্রে খবর, ১৩ ও ১৪ অগাস্ট তারিখে কেরল কর্ণাটক, কোঙ্কন উপকূল, ওড়িশা এবং মহারাষ্ট্রেরর উপকূলীয় এলাকায় ভারী থেকে অতি ভারী বৃষ্টির সতর্কতা জারি করা হয়েছে। 

বিমানবন্দরের ছাদ ফুটো, পড়ছে অঝোরে বৃষ্টি, ভিডিও ভাইরাল নেটদুনিয়ায়

সোমবার দেরাদুনের চামোলিতে মেঘভাঙা বৃষ্টির কারণে ভূমি ধসে গিয়ে মৃত্য হয়েছে ছয়জনের। জম্মু ও কাশ্মীরে বোল্ডার চাপা পড়ে একই পরিবারের তিনজনের মারা যাওয়ার খবর পাওয়া গিয়েছে। গত রবিবার থেকে পশ্চিমবঙ্গের পূর্ব মেদিনীপুর, পুরুলিয়া-সহ আরও পাঁচ জেলায় বাজ পড়ে মৃত্যু হয়েছে ১৬ জনের, তার মধ্যে চারজন কৃষকও ছিলেন। 

গুজরাতে বন্যার স্রোতে ১২৫ জন মানুষ ভেসে গিয়েছেন বলে খবর। গত চার দিনে প্রবল বৃষ্টির কারণে গুজরাতে মৃত্যু হয়েছে অন্তত ৩১ জনের। ভারী বৃষ্টিপাতের কারণে সোমবার পর্যন্ত মৃত্যু হয়েছে অন্তত ৮০ জনের।