চলতি সপ্তাহেই  কাশ্মীরের পরিস্থিতি পরিদর্শনে এসেছিল ইউরোপীয় ইউনিয়নের কয়েকজন কূটনীতিকের দল। তাঁরা কাশ্মীরের পরিস্থিতি নিয়ে সংশয় প্রকাশ করলেও  এই বিষয়ে বিস্তারিত কোনও মন্তব্য করেননি। কিন্তু সম্প্রতি দুই দিনের ভারত সফরে আসা জার্মানি চ্যান্সেলর অ্যাঞ্জেলা মর্কেল স্পষ্টভাবে জানিয়ে দেন, কাশ্মীরে এখনও অস্থিরতা বিরাজ করছে। কাশ্মীরে পরিস্থিতির আরও উন্নতির প্রয়োজন। 

 শুক্রবার সন্ধ্যায় প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর সঙ্গে বৈঠক করেন জার্মান চ্যান্সেলর অ্যাঞ্জেলা মর্কেল।  বৈঠকে তিনি কাশ্মীর প্রসঙ্গ টেনে আনেন। কাশ্মীর নিয়ে বরাবর ভারত নিজের অবস্থান স্পষ্ট করেছে। কিন্তু বর্তমানে কাশ্মীরের পরিস্থিতি স্বাভাবিক করতে ভারত সরকার কী পদক্ষেপ নিচ্ছেন, সেই বিষয়ে স্পষ্ট মোদীর কাছে মর্কেল জানতে চান বলে জানা গিয়েছে।  মোদীর সঙ্গে মর্কেলের বৈঠক হয়। বৈঠকের পর বেশ কয়েকটি চুক্তিতে স্বাক্ষর করে  অ্যাঞ্জেলা মর্কেল এবং নরেন্দ্র মোদী। এরপর সাংবাদিক সম্মেলনে বক্তব্য রাখার সময় কাশ্মীর  প্রসঙ্গে কোনও রাখঢাক না রেখেই মন্তব্য করেন মর্কেল। মোদীর সঙ্গে বৈঠকের পাশাপাশি ভারত সফরে মর্কেল বেশ কয়েকজন ক্যাবিনেট মন্ত্রী ও শিল্পপতিদের সঙ্গে বৈঠক করবেন বলে জানা গিয়েছে। শুক্রবার যৌথ সম্মলেন বক্তব্য রাখতে গিয়ে ভারতীয় প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী বলেন, দ্বিপাক্ষিক বাণিজ্যিক সম্পর্ত উন্নত করতে আমরা দেশের কয়েকজন শিল্পপতির সঙ্গে বৈঠক করব। 
 
দুই দিনের সফরে বৃহস্পতিবার রাতে ভারতে আসেন জার্মান চ্যান্সেলর অ্যাঞ্জেলা মর্কেল ভারতে আসেন। তাঁকে অভ্যর্থনা জানাতে উপস্থিত ছিলেন প্রধানমন্ত্রী দপ্তরের প্রধান আধিকারিক জিতেন্দ্র সিং। শুক্রবার প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর সঙ্গে বৈঠক করেন অ্যাঞ্জেলা মর্কেল।  অ্যাঞ্জেলা মর্কেলের সঙ্গে যৌথ সাংবাদিক সম্মেলনে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী জানান, জার্মানির সঙ্গে এদিন মোট পাঁচটি চুক্তি হয়েছে। ভারত ও জার্মানির মধ্যে নতুন ও উন্নত প্রযুক্তি, কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা, শিক্ষা ও সাইবার সুরক্ষার ক্ষেত্রে একে অপরকে সাহায্য করতে চলেছে।