গত কয়েকদিনে শুদু ভারত নয়, বিশ্ব জুড়েই আলোচনায় রয়েছে দিল্লির বায়ুদূষণ। বাতাসের গুণমান সূচক অধিকাংশ জায়গাতেই ৫০০ ছাপিয়ে গিয়েছে। কোনওভাবেই মোকাবিলা করার পথ খুঁজে পাওয়া যাচ্ছে না। রাজনৈতিক স্তরে আবার জন্য চাপান উতোর তৈরি হয়েছে। দিল্লির বায়ুমণ্ডলের হাল বিগরে যাওয়ার জন্য প্রতিবেশী রাজ্যগুলিকে দায়ী করেছেন দিল্লির মুখ্যমন্ত্রীষ এই অবস্থায় বায়ুদূষণ মোকাবিলার একেবারে অতি সহজ সমাধান দিলেন উত্তরপ্রদেশের এক বিজেপি মন্ত্রী।

দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়াল সম্প্রতি পঞ্জাব ও হরিয়ানা রাজ্যে কৃষকদের ফসলের আগা জ্বালিয়ে দেওয়াকেই দিল্লি ও আশপাশের এলাকার বায়ু দূষমের প্রধান কারণ হিসেবে চিহ্নিত করেছেন। তাঁর দাবি একমাস আগেও পরিবেশ অনেক ভাল ছিল, ফসলের আগা জ্বালানোর কারণেই এই পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে।

উত্তরপ্রদেশের মন্ত্রী সুনীল ভরলা অবশ্য কৃষকদের দোষ দিতে নারাজ। তিনি জানিয়েছেন ফসলের আগা ক্ষেতেই জ্বালিয়ে দেওয়া কৃষকদের বরাবরের অভ্যাস। তাঁরা সেটা করবেনই। এটা খুবই স্বাভাবিক বিষয়। এর জন্য কৃষকদের সমালোনা করা দুর্ভাগ্যজনক।

তাহলে দূষণ প্রতিরোধে উপায়? সুনীল ভরলা জানিয়েছেন সরকারকে যজ্ঞ করতে হবে। ইন্দ্রকে তুষ্ট করতে হবে। তাহলেই বৃষ্টির দেবতা ইন্দ্র সব ঠিক করে দেবেন।  

ভরলার এই সমাধান শুনে অবশ্য মাথায় হাত পরিবেশবিদদের। ধোঁয়াশা নিয়ে যখন নাজেহাবল অবস্থা, তখন যজ্ঞ করে আরও ধোঁয়া দিলে বিপদ বাড়বে বলেই মনে করছেন তাঁরা। তবে কথায় বলে বিষে বিষক্ষয় হয়। ভরলা বোধহয় ধোঁয়ায়, ধোঁয়াশাক্ষয় হওয়ার কথা বলেছেন। এর আগে উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ নিজে হাতে অযোধ্যায় রামমন্দির গড়বেন বলে শিরোনামে এসেছিলেন ভরলা।