মর্মান্তিক ঘটনা বললেও কম বলা হয়। মঙ্গলবার হরিয়ানার হিসার-এর বরওয়ালা এলাকায় স্ত্রীকে হত্যা করে নিজে আত্মঘাতি হলেন এক ব্যক্তি। নিহত মহিলা আবার গর্ভবতীও ছিলেন। দিনমজুর হিসাবে কাজ করা ওই ব্যক্তি এই ভয়ঙ্কর পদক্ষেপ নেওয়ার আগে একটি সুইসাইড নোটও লিখে গিয়েছেন। তা থেকে জানা গিয়েছে দুই যুবক ওই মহিলাকে ধর্ষণ করেছিল।

আত্মঘাতি ওই শ্রমিকের সুইসাইড নোট অনুসারে গত ১৫ অগাস্ট তিনি একটি কাজে গ্রামের বাইরে গিয়েছিলেন। ফিরে এসে স্ত্রী-কে কান্নাকাটি করতে দেখেন। স্ত্রী তাঁকে জানান, তাঁদের গ্রামেরই দুই যুবক তাঁকে গণধর্ষণ করেছে। লোকলজ্জায় স্ত্রী, ওই শ্রমিককে তাঁকে হত্যা করার জন্য বলেছিলেন। কিন্তু ওই ব্যক্তি বলেন, তাতে তিনি হত্যার দায়ে অভিযুক্ত হবেন। এরপর নিজেই প্রস্তাব দিয়েছিলেন স্ত্রীকে হত্যা করে পরে নিজে আত্মঘাতি হওয়ার। আর কার্যক্ষেত্রেও তাই করেন। সুইসাইড নোটে ওই ব্যক্তি আরও লেখেন তাঁদের সন্তানকেও তাঁদের সঙ্গেই মরতে হচ্ছে, কিন্তু, মৃত্যু ছাড়া তাঁদের হাতে আর কোনও বিকল্প নেই।

মৃতার ভাই জানিয়েছেন, তাঁর দিদির মৃত্যুর কথা তাঁকে ফোন করে জানিয়েছিলেন তাঁর ভগ্নিপতি। সেই কারণেই তাঁদের বাড়িতে এসেছিলেন তিনি। তবে, বাড়িতে এসে তিনি তাঁকেও ঝুলন্ত অবস্থায় দেখতে পান। এরপর তিনিই থানায় অভিযোগ দায়ের করেন। তার ভিত্তিতেই এই বিষয়ে একটি মামলা দায়ের করেছে বরওয়ালা থানার পুলিশ। অভিযুক্ত ওই দুই যুবকের বিরুদ্ধে হত্যা, আত্মহত্যার জন্য প্ররোচনা দেওয়া এবং গণধর্ষণএর অভিযোগে মামলা করা হয়েছে।