৩১ ডিসেম্বর থেকে নতুন দায়িত্ব পেলেন সদ্য প্রাক্তন সেনাপ্রধান জেনারেল বিপিন রাওয়াত। এখন থেকে তাঁর পরিচয় চিফ অব ডিফেন্স স্টাফ বা প্রতিরক্ষা প্রধান। এখন থেকে তাঁর আওতায় শুধু সেনাবাহিনী নয়, থাকছে বায়ুসেনা ও নৌবাহিনী-ও। আর এই তিন বাহিনীর প্রতিনিধিত্ব স্বরূপ অনেকটাই বদলে যাচ্ছে তাঁর ইউনিফর্ম-ও। দেখে নেওয়া যাক, ঠিক কীরকম হল তাঁর নয়া পোশাক।

ইউনিফর্মের রঙ আগের মতোই জলপাই সবুজ রঙের হলেও, তাতে লাগানো ব়্যাঙ্ক ও ব্যাজগুলি পাল্টে যাচ্ছে। তিন বাহিনীর প্রতিনিধিত্ব রাখতে কাঁধের কাছে মেরুন রঙা প্যাচের উপর সোনালি দিয়ে অশোকস্তম্ভ এঁকে তৈরি করা হয়েছে সিডিএস-এর ব়্যাঙ্ক ব্যাজ। র‌্যাঙ্ক বোঝানোর জন্য কাঁধে কোনও তরোয়াল বা লাঠি বা তারা-র চিহ্ন থাকবে না। সিডিএস ইউনিফর্ম-এ থাকবে না কোনও দড়িও। নিরপেক্ষতা বজায় রাখতে তিন বাহিনীর বা কোনও রেজিমেন্টের চিহ্ন বা প্রতীক ব্যবহার করা হবে না।

সিডিএস-এর মাথার টুপিটিও হবে আলাদা। সেখানেও তিন বাহিনীর প্রতিনিধিত্ব সূচক ব্যাজ লাগানো থাকবে। টুপিতে যে ব্যাজ ব্যবহার করা হচ্ছে, তার আদলেই তৈরি হয়েছে বেল্ট বাকল-ও। একই প্রতীক থাকছে ইউনিফর্মের বোতামেও।

তিন বাহিনীর প্রধানদের কলারে থাকে চারটি তারা। সিডিএসের ইউনিফর্মে কিন্তু সেই তারাগুলিও দেখা যাবে না। কারণ এই তারাগুলি একটি নির্দিষ্ট বাহিনীর পরিষেবার প্রতিনিধিত্ব করে। ইউনিফর্মের বুকে অবশ্য পরিষেবা ফিতাগুলি যেমন ছিল, তেমনই থাকবে।

তিন বাহিনীর প্রধানদের অফিসে তাঁদের বাহিনীর নির্দিষ্ট পতাকা লাগানো থাকে। সিডিএসের কার্যালয়ে তিনটি পতাকাই উড়বে কিনা তা স্পষ্ট নয়। তবে ভারতীয় প্রতিরক্ষা বিভাগের পক্ষ থেকে তাঁর গাড়িতে যে পতাকাটি লাগানো হবে তা প্রকাশ করা হয়েছে। সেখানে ভারতের তেরঙ্গা পতাকা ও সিডিএস-এর ব়্যাঙ্ক ব্যাজ দুটিই রয়েছে।

জেনারেল বিপিন রাওয়াত-এর নয়া সরকারি বাসভবনের ঠিকানা হল নয়াদিল্লির ৩, কামরাজ মার্গ। সিডিএস প্রতিরক্ষা মন্ত্রকের পঞ্চম সচিব হলেন। এতদিন এই মন্ত্রকের চারজন সচিব ছিলেন। তাঁরা হলেন প্রতিরক্ষা দপ্তর, প্রতিরক্ষা উৎপাদন দফতর, প্রতিরক্ষা গবেষণা ও উন্নয়ন বিভাগ এবং প্রাক্তন সেনা কল্যাণ বিভাগ-এর প্রধান।