শুক্রবার দ্বিতীয় মোদী সরকারের প্রথম পূর্ণ বাজেট পেশ হল। কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারমণ বাজেট পেশ করলেন। ৪৯ বছর পর সংসদে পূর্ণাঙ্গ বাজেট পেশ করলেন  কোনও মহিলা অর্থমন্ত্রী। তিনি বলেন গত পাঁচ  বছরে অনেক ক্ষেত্রে অনিবার্য সাফল্য এসেছে , সংস্কারের চ্যালেঞ্জ ও বাস্তবায়িত হয়েছে। তিনি আর বলেন ‘মজবুত নাগরিক, মজবুত দেশ’গড়ার কাজ শুরু হয়েছে।  এই বাজেটে  তিনি তুলে ধরলেন একগুচ্ছ নতুন প্রকল্প। 

আসুন জেনে নেওয়া যাক ঠিক কোন কোন প্রকল্পের ওপর নজর দিয়েছেন কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারমণ- 

জল  ও নদী সংস্কার প্রকল্পে জোর দেওয়া হয়েছে। জোর দেওয়া হয়েছে ভারতমালা ও সাগরমালা প্রকল্পেও। 
হলদিয়ায় চালু হবে নতুন পণ্য পরিবহণ টার্মিনাল, বারাণসীর ধাঁচে তৈরি হবে টার্মিনাল। 
ফারাক্কা ও হলদিয়া বন্দরের উন্নয়ন করা হবে৷ কাজ শেষ হবে ২০২০ সালের মধ্যে। এছাড়াও টার্মিনাল লক তৈরি হবে ফারাক্কায়। 
কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী আর জানান সাহেবগঞ্জ ও হলদিয়াতে নতুন রেল-ইউনিট তৈরি হবে। 
মেট্রো রেলে ৩০০ কিমি নতুন পথ সংযোজিত হবে। 
‘এক দেশ এক গ্রেড বিদ্যুৎ’ প্রকল্প চালু হবে। বিদ্যুৎ গ্রিড এর ধাঁচে গ্যাস গ্রিড চালু হবে। 
ক্ষুদ্র ব্যবসায়ীরা এরপর থেকে পেনশন পাবেন। 
বন্ডের মাধ্যমে এমএসএমই-তে ৩ কোটি টাকা পর্যন্ত ঋণের ব্যবস্থা হবে। 
ভাড়াটিয়া আইনেও বদল আনতে চলেছে সরকার।
একশ শতাংশ  বিদেশী বিনিয়োগে সুপারিশ।
মৎস্যজীবীদের সুরক্ষায় মৎস্য-সুরক্ষা যোজনা।
ছোট শহরগুলি জুড়তে এন্রুট প্রকল্প। 
এই বাজেট অনুযায়ী,  বৈদ্যুতিন গাড়ি কিনলে ছাড় আয়করে, ইএমআই-এ পাঁচ   শতাংশ কর ছাড়ের সুবিধা।
প্রধানমন্ত্রী আবাস যোজনায় ২০২২-এর মধ্যে দেশজুড়ে নতুন  ১ কোটি ৯৫ লক্ষ বাড়ি তৈরি হবে৷
বাড়ি তৈরির সময় টাকা চেকে দেওয়া বন্ধ, সরাসরি ব্যাংক অ্যাকাউণ্টে টাকা চলে যাবে। 
জলের উৎস খুঁজতে নয়া-প্রকল্প , জলজীবন  মিশন। "নল দিয়ে জল" প্রকল্প চালু হবে।
সীতারমণ জানান জেন্ডার ইনডেক্স তৈরি হবে৷ লিঙ্গ বৈষম্য রুখতে কমিটি।  যে  মহিলাদের জনধন অ্যাকাউন্ট রয়েছে, তাঁরা পাঁচ হাজার টাকা পর্যন্ত ওভার ড্রাফট করতে পারবেন।
 নির্মলা জানান এই দেশে মহিলাদের অবদান অনস্বীকার্য, তিনি বলেন "নারী তু নারায়ণী"। 
প্রবাসী ভারতীয়দের জন্য সুবিধা, দ্রুত আধার কার্ড তৈরি।
ইজিসি ধাঁচে তৈরি হবে নতুন সংস্থা- "ন্যাশনাল রিসার্চ ফাউণ্ডেশন"। অর্থমন্ত্রী জানান  মিশন স্টাডি ইন ইন্ডিয়া চালু হবে,বিদেশি ছাত্র টানার জন্য। 
স্টার্ট আপ এর জন্য এক্সক্লুসিভ টেলিভিশন চ্যানেলে। 
গান্ধীজির জীবন নিয়ে 'গান্ধীপিডিয়া' তৈরি হবে।

- সবমিলিয়ে অর্থনৈতিক বিশেষজ্ঞদের মতে, ২০১৯-২০ অর্থবর্ষের বাজেটে এক উন্নত ভারতের ছবিটাকে স্পষ্ট করে তুলে ধরা হয়েছে। যার ফলে মোদী সরকারের এই বাজেটে শিল্প বা কৃষি-শিল্পের থেকেও বেশি করে স্পষ্ট হয়ে উঠেছে সামাজিক প্রকল্প। এতে হয়তো নরেন্দ্র মোদী সরকার কল্পতরু হয়ে পাইয়ে দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দেননি, কিন্তু সমাজ জীবনের মান্নোয়ন এবং মজবুত ও স্থায়ী অর্থনীতির লক্ষে কর্মসংস্থানের সুযোগ তৈরি থেকে শিল্প বিকাশের সহায়ক পরিবেশ গড়ে তোলার পক্ষেই জোর দিয়েছেন।