অভিযোগ ছিল গ্রামেরই এক ব্যক্তিতে খুন করার ও তার অন্তস্বত্ত্বা ভাইয়ের স্ত্রীকে নিগ্রহ করার।  তারই বদলা নিল গ্রামবাসীরা। আগুন ধরিয়ে দেওয়া হল অভিযুক্ত তিন ব্যক্তির বাড়িতে। ঘটনাস্থল কংগ্রেস শাসিত মধ্যপ্রদেশ।

অভিযোগ ছিল প্রধানমন্ত্রী আবাস যোজনায় প্রাপ্ত জমির ভাগ চাইছিল ওই তিন ব্যক্তি। এই নিয়ে মৃতের পরিবারের পক্ষ থেকে পুলিশে অভিযোগও দায়ের করা হয়েছিল। বুধবার অভিযুক্তরা  অস্ত্র নিয়ে হুমকি দিতে যায় মৃতের বাড়ি। সেই সময় তার ছোটভাইয়ের অন্তস্বত্ত্বা স্ত্রীকে শারীরিক নিগ্রহও করা হয় বলে অভিযোগ। ভাশুরকে বাঁচাতে গিয়ে গুরুতর আহত হন ভাইয়ের বউ। মঞ্ঝগগন পুলিশ তাদের হাসপাতালে নিয়ে গেলে ভাশুরের মৃত্যু হয়। মৃত্যুর সঙ্গে পাঞ্জা লড়ছেন ভাইবৌ। 

এরপরেই ক্ষুব্ধ গ্রামবাসীরা অভিযুক্তদের বাড়ি আগুন ধরিয়ে দেয়। এমনকি স্থানীয়দের আক্রোশের হাত থেকে রেহাই পায়নি পুলিশের গাড়িও। ভাঙচুর করা হয় পুলিশের জিপ। পরিস্থিতি সামলদিতে লাঠিচার্জ করতে হয় পুলিশকে। ফাটাতে হয় কাঁদানে গ্যাসের শেল। ক্ষুব্ধ জনতার হামলায় আহত হন ৬ পুলিশকর্মীও। 

বৃহস্পতিবার পুলিশের উপর হামলার ঘটনায় অভিযুক্তদের চিহ্নিত করার কাজ শুরু হয়েছে। পাশাপাশি মামলা রুজু হয়েছে তিন অভিযুদ্ধের বিরুদ্ধেও। যদিও ঘটনার পর থেকেই পলাতক খুন ও শ্লীলতাহানির ঘনায় অভিযুক্ত তিন জনই।