লকডাউনে অধিকাংশ ভারতবাসী বাড়িতেই ছিলেন। আর তার দৌলতে গোটা ভারত থেকেই বিপুল পরিমাণ ইলেকট্রিক বিল আসার খবর পাওয়া যাচ্ছে। এবার হায়দরাবাদের এক ব্যক্তির হাতে চার মাসের জন্য ইলেকট্রিকের যে বিল ধরালো ইলেকট্রিসিটি বোর্ড তাতে তাঁর চক্ষু চড়কগাছ। নিরুপায় হয়ে বোর্ড কে তিনি তাঁর বাড়িই নিলামে তোলার প্রস্তাব দিলেন।

ওই উপভোক্তার নাম বীরবাবু। সাধারণত ৮০০ থেকে ১০০০ টাকা টাকার মধ্য়েই ইলেকট্রিকের বিল হয় তাঁর। গত কয়েক মাস ধরে লকডাউন চলছিল, বোর্ড থেকে তাঁকে কোনও বিল দেওয়াও হয়নি। তবে সম্প্রতি বিদ্যুৎ সরবরাহ বোর্ডের আধিকারিকরা এসে তাঁর মিটার থেকে রিডিং নিয়ে তাঁকে বিল দেন। তিনি জানিয়েছেন চার মাসের জন্য তাঁকে বিল দেওয়া হয় ৬.৬৭ লক্ষ টাকার।

এরপরই তিনি বিলে গন্ডোগোলের অভিযোগ করেন ইলেকট্রিসিটি বোর্ডের কাছে। যদি এই বিলটিই সঠিক হয়, সেই ক্ষেত্রে বিদ্যুর পর্ষদের কর্তাদের তিনি, চাইলে তার বাড়ি নিলাম করতে পারেন বলেও জানান। কিন্তু, বোর্ডের পক্ষ থেকে তাঁর এই অভিযোগের কোনও জবাব দেওয়া হয়নি বলে অভিযোগ বীরবাবু-র। এরপরই তিনি তাঁর এই আজব বিলের বিষয়ে একটি ভিডিও তৈরি করে সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করেছিলেন।

সেই ভিডিও ভাইরাল হতেই চাপে পড়ে যায় বিদ্যুক বিভাগ। বিতর্ক এড়াতে বিদ্যুৎ বিভাগের আধিকারিকরা তাঁর বাড়িতে নেমে এসে মিটারটি পাল্টে দিয়ে যান। পরে বিদ্য়ুত বিভাগের এক কর্মকর্তা জানিয়েছেন, মিটারের সমস্যার জন্যই ওইরকম অস্বাভাবিক পরিমাণ হিল এসেছিল। পরে অবশ্য ভুল সংশোধন করা হয়েছে। বীরবাবু-কে আসলে দিতে হবে ৮,৭১৬ টাকা।