সোমবার, ওড়িশার ভুবনেশ্বর ও পুরি জেলার আবাসিক এলাকায় ঢুকে তীব্র আতঙ্ক সৃষ্টি করল একটি দাঁতাল হাতি। জানা গিয়েছে, হাতিটি রীতিমতো তছনছ করে দিয়েছে বেশ কয়েকটি গ্রাম। তার কবলে পরে মৃত্যু হয়েছে অন্তত চারজনের। আরও তিনজন গুরুতর আহত হয়েছেন।

ওড়িশার প্রধান বন সংরক্ষক এইচএস উপাধ্যায় জানিয়েছেন, হাতিটি চন্দক বন্যপ্রাণ অভয়ারণ্য থেকে কোনওভাবে পুরি জেলার ডেলাং অঞ্চলে চলে এসেছিল। পরে ভূবনেশ্বরে চলে আসে। তিনি আরও জানান হাতিটির আক্রমণে এদিন পুরি জেলায় দু'জন মারা গেছেন এবং সেইসঙ্গে আর দু'জন গুরুতর আহত হয়েছেন। আর ভুবনেশ্বরের খোর্ধায় আরও দু'জন প্রাণ হারিয়েছেন এবং একজন আহত হয়েছেন।

তবে হাতিটি পাগলা নয় বলেই মনে করছেন প্রধান বন সংরক্ষক। তাঁর দাবি পুরির বাসিন্দারা হাতির চলাচল করা দেখতে অভ্যস্ত নন। অনেকেই নাকি হাতি দেখে অতি উৎসাহে হাতিটির খুব কাছাকাছি আসতে শুরু করেছিলেন। বেশ কয়েকদজন মোবাইলে ছবি-ও তোলেন। কেউ কেউ হাতিটির সঙ্গে সেলফি তোলেন। এমনকী, কয়েকজন অতি উৎসাহী হাতিটিকে ছুঁতেও গিয়েছিল। যার কারণেই, হাতিটি হঠাৎ খেপে যায়। আর তাতেই একগুলি প্রাণহানি হয়েছে।