চাকরির কথা বলতে গিয়ে যৌন হেনস্তার শিকার। নিজেকে বাঁচাতে প্রাণপনে চিৎকার করলেন বছর ২১ এর তরুণী। তাঁকে বাঁচাতে এগিয়ে এলেন কয়েকজন। হেনস্তাকারীকে মেরে তাড়িয়ে দিলেন। তারপর ওই তরুণীকেই গণধর্ষণ করল রক্ষা করতে আসা যুবকের দল। এমন ঘটনাই ঘটেছে নয়ডার ৬৩ সেক্টরে। ঘটনাস্থল থেকে স্থানীয় থানার দুরত্ব ৫০০ মিটারের বেশি নয়। 

পুলিশ এক বিবৃতিতে জানিয়েছেন, ২১ বছরের এক তরুণী পরিবারের সঙ্গে নয়ডাতে থাকেন।  চাকরি নিয়ে আলোচনা করতে সেক্টর ৬৩তে রবি নামের  এক ব্যক্তির সঙ্গে দেখা করতে যান। রবি তাকে ফোন করে  ডেকেছিল চাকরির বিষয়ে কিছু জরুরি কথাবার্তা বলার জন্য। এরপর রবি তাকে সামনের একটি পার্কে নিয়ে গিয়ে ধর্ষণের চেষ্টা করে।  পুলিশ জানিয়েছে, সেই সময় তরুণী সাহায্যের জন্য চিৎকার করতে থাকেন। সাহায্য করতে এগিয়ে আসেন দুই যুবক। রবি নামের ওই ব্যক্তির হাত থেকে তরুণীকে রক্ষা করে দুই যুবক। দুই অপরিচিত ব্যক্তির মারের চোটে রবি ঘটনাস্থল থেকে পালিয়ে যায়।  এরপরেই গুড্ডু ও শামু নামের দুই যুবক তাঁকে ধর্ষণ করে। তারা ফোন করে ব্রজকিশোর, পিতাম্বর ও উমেশকে ডাকে ওই তরুণীকে ধর্ষণ করার জন্য। 

পুলিশ জানিয়েছে, ঘটনার সঙ্গে যুক্ত চার জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। আরও দুজনের সন্ধানে পুলিশ তল্লাশি অভিযান শুরু করেছে। রক্তাক্ত অবস্থায় থানার অভিযোগ জানাতে আসেন তরুণীকে। অভিযোগ নেওয়ার পরেই যত দ্রুত সম্ভব তাঁকে স্থানীয় হাসপাতালে ভর্তি করে দেওয়া হয়। পুলিশ জানিয়েছে, এখন তরুণী বিপদ থেকে মুক্ত।