কাশ্মীরে ৩৭০ ধারা বাতিল করার পর দুই দেশের মধ্যে বাড়তে থাকা উত্তেজনার মধ্যে রেল পরিষেবা বন্ধ করে দিয়েছিল পাকিস্তান। তারপর পাঁচ  মাস কেটে গেলেও সমঝোতা এক্সপ্রেস-এর কামড়াগুলি ফেরত দেয়নি ইমরান খান সরকার। মঙ্গলবার ভারতের পক্ষ থেকে সরকারি ভাবে সেই কামড়াগুলি ফেরত চাওয়া হল।

রেল মন্ত্রকের এক পদস্থ কর্তা জানিয়েছেন ইতিমধ্যেই বিদেশ মন্ত্রকের মাধ্যমে ইসলামাবাদের কাছে রেকগুলি ফেরত চেয়ে বার্তা পাঠানো হয়েছে। যত দ্রুত সম্ভব ওয়াঘা সীমান্তে পড়ে থাকা কামড়াগুলি ভারতে পাঠানোর ব্যবস্থা করতে হবে বলে দাবি করেছে দিল্লি।

গত বছর ৮ অগাস্ট শেষবার এই কামড়াগুলি ব্যবহার করা হয়েছিল। তারপর আচমকাই এই রেল পরিষেবা বন্ধ করার কথা ঘোষণা করে ইমরান খান সরকার। ট্রেনে থাকা ১১৭ জন ভারতীয় যাত্রী চরম অসুবিধার সম্মুখীন হয়েছিলেন। শেষ পর্যন্ত ভারতীয় রেল মন্ত্রক থেকে ইঞ্জিন পাঠিয়ে সেই ট্রেনটিকে ওয়াঘা থেকে আত্তারি-তে আনা হয়েছিল। দুপুর সাড়ে বারোটায় আত্তারিতে পৌঁছনোর কথা থাকলেও ট্রেনটি পৌঁছায় বিকাল সোয়া পাঁচটায়।

সেই ট্রেনটিকে ফিরিয়ে আনা গেলেও সমঝোতা এক্সপ্রেসের অন্যান্য ভারতীয় রেকগুলি এখনও ওয়াঘাতেই পরে রয়েছে। ১৯৭৬-এ এই রেল পরিষেবা চালুর সময়ই নিয়ম করা হয়েছিল বছরের প্রথম ছয় মাস সমঝোতা এক্সপ্রেস চলবে পাকিস্তানি রেক ব্ভবহার করে, ার পরের ছয় মাস চলবে ভারতীয় রেক ব্যবহার করে।