২০২১ সালের জানুয়ারিতে রাষ্ট্রসংঘের নিরাপত্তা পরিষদের অস্থায়ী সদস্য হিসাবে যোগ দেবে ভারত। তার আগেই রাষ্ট্রসংঘে কূটনৈতিক উপস্থিতি বাড়ানোর সিদ্ধান্ত নিল ভারত। এরজন্য একজন অতিরিক্ত উপ-স্থায়ী প্রতিনিধি বা ডিপিআর এবং নিরাপত্তা পরিষদের বিষয়গুলি পরিচালনা করার জন্য একজন কাউন্সিলর নিযুক্ত করা হচ্ছে। এর সঙ্গে সঙ্গে প্রতিমাসে নিরাপত্তা পরিষদে ভারতের অবস্থান ব্যক্তিগতভাবে পর্যালোচনা করবেন বিদেশমন্ত্রী এস জয়শঙ্কর।

সাউথ ব্লক সূত্রে খবর ১৯৯৯ ব্যাচের ইন্ডিয়ান ফরেন বিদেশী সার্ভিস অফিসার আর রবীন্দ্রন নিউইয়র্কে রাষ্ট্রসংঘের স্থায়ী মিশনে ডিপিআর পদের সমমানের পদে যোগ দেবেন। আর ২০০৭ সালের আইএফএস অফিসার তথা বর্তমানে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের উপসচিব, প্রতীক মাথুর-কে নিযুক্ত করা হচ্ছে কাউন্সিলর পদে। আগামী ১৫ সেপ্টেম্বর, রাষ্ট্রসংঘের সাধারণ পরিষদের ৭৫তম শীর্ষ সম্মেলনের আগেই এই দুই কর্মকর্তা তাদের কাজে যোগ দেবেন।

রাষ্ট্রসংঘ প্রতিষ্ঠা হয়েছে ৭৫ বছর আগে। এতদিনেও ভারত এই আন্তর্জাতিক সংগঠনের নিরাপত্তা পরিষদে স্থায়ী সদস্যপদ পায়নি। তবে রাষ্ট্রসংঘের নিরাপত্তা পরিষদের অস্থায়ী সদস্য হিসাবে ১৯৯টি বৈধ ভোটের মধ্যে বিস্ময়কর ভাবে ১৮৪টি ভোট পাওয়ার পর, এবার স্থায়ী সদস্য হওয়ার লক্ষ্যে ঝাঁপাচ্ছে নয়াদিল্লি। মূলত পূর্ব লাদাখের গালওয়ানে চিনের বিরুদ্ধে ভারতের রুখে দাঁড়াবার ক্ষমতা দেখার পরই এই অভাবনীয় সংখ্যক ভোট এসেছে বলে মনে করা হচ্ছে। ইউএনএসসি-তে আরও গঠনমূলক ভূমিকা রেখে এবার স্থায়ী সদস্যপদ পাওয়াটাই লক্ষ্য ভারতে।