বৃহস্পতিবার বিশ্বব্যাঙ্কের বিজনেস ব়্যাঙ্কিংয়ে তালিকা প্রকাশিত হয়েছে। এই তালিকায় এক ধাপে ১৪টি ধাপ উঠে এসেছে ভারত। বিশ্বব্যাঙ্কের বিজনেস ব়্যাঙ্কিংএ বর্তমানে ভারতের স্থান ৬২। ঠিক যে সময়ে ভারতের অর্থনীতি ভেঙে পড়ছে বলে সরব হচ্ছে একাধিক মহল, তখন বিশ্বব্যাঙ্কের এই ব়্যাঙ্কিং যথেষ্ট তাৎপর্যপূর্ণ বলে মনে করছে বিশেষজ্ঞ মহল। 

সেরা পারফরম্যান্স বিচারে ভারত পর পর তিন বছর প্রথম ১০টি দেশের মধ্যে নিজের জায়গা নিশ্চিত করে নিয়েছে।  বিশ্বে অর্থনীতিতে মন্দার কারণে ভারতীয় রিজার্ভ ব্যাঙ্ক, বিশ্ব ব্যাঙ্ক, আন্তর্জাতিক মুদ্রা তহবিল জানিয়েছে, অর্থনীতির দিক থেকে এই মুহূর্তে ভারতের  বৃদ্ধির কোনও সম্ভাবনা নেই।  ২০১৪ সালে নরেন্দ্র মোদী যখন প্রথমবারের জন্য প্রধানমন্ত্রী হন, ১৯০টি দেশের মধ্যে ভারতের স্থান ছিল ১৪২ তম। ২০১৮ সালের একটি রিপোর্টে বিশ্ব ব্যাঙ্কের বিজনেস ব়্যাঙ্কিংয়ে ভারত চলে আসে ১০০তম স্থানে। ২০১৭ সালে ভারতের স্থান উগান্ডা এবং ইরানের থেকেও পিছনে ছিল। সেই সময় ভারতের স্থান ছিল ১৩০।

 

এক সাক্ষাৎকারে বিশ্বব্যাঙ্কের ডেভালপমেন্ট ইকনোমিক্সের ডিরেক্টর সিমন দজানকভ জানিয়েছেন, পারফররম্যান্সের দিক থেকে ভারত পর পর তিন বছর প্রথম ১০টি দেশের মধ্যে নিজের জায়গা নিশ্চিত করে নিয়েছে। এই সাফল্য খুব কম দেশই ধরে রাখতে পেরেছে। অনেক দেশ  রয়েছে যারা জনসংখ্যার দিক থেকে খুব ছোট তারাই একমাত্র এই ধরনের সাফল্য নিশ্চিত করেছে।