ফের দৈনিক সংক্রমণে রেকর্ড ভারতের। বৃহস্পতিবার দেশে দৈনিক আক্রান্তের সংখ্যা ছিল ৭৫,৭৬০ জন। শুক্রবার ভেঙে গেল সেই রেকর্ড। গত ২৪ ঘণ্টায় ভারতে করোনা আক্রান্ত হয়েছেন ৭৭ হাজার ২৬৬। যা এদেশে এখনও পর্যন্ত সর্বোচ্চ। যার ফলে দেশে বর্তমানে মোট করোনা আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৩৩ লক্ষ ৮৭ হাজার ৫০১।

 

 

বৃহস্পতিবার দেশে করোনায় দৈনিক মৃতের সংখ্যা হাজার ছাড়িয়েছিল। সেই ধারা বজায় থাকল শুক্রবারও। গত ২৪ ঘণ্টায় কোভিড ১৯ রোগে মৃত্যু হয়েছে ১,০৫৭ জনের। ফলে ভারতে মোট করোনায় মোট মৃতের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৬১ হাজার ৫২৯।

শুক্রবার সকালে প্রকাশিত মেডিক্যাল বুলেটিনে কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রক জানিয়েছে, করোনাকে হারিয়ে দেশে এখনও পর্যন্ত সুস্থ হয়ে উঠেছেন ২৫,৮৩,৯৪৮ জন। গত ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়েছেন ৬০,১৭৭ জন। ফলে দেশে সক্রিয় রোগীর সংখ্যা এখন ৭,৪২,০২৩ জন।  দেশে সুস্থতার হার বেড়ে হয়েছে ৭৬.৩ শতাংশ। মৃতের হার হয়েছে ১.৮ শতাংশ। 

কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রকের রিপোর্ট অনুযায়ী, বৃহস্পতিবার গোটা দেশে ৯ লক্ষ ১  হাজার ৩৩৮  কোভিড টেস্ট হয়েছে।   যা বুধবারের থেকে ২৩ হাজার কম।সব মিলিয়ে ভারতে এ পর্যন্ত ৩ কোটি ৯৪  লক্ষ ৭৭ হাজার ৮৪৮ টি নমুনার কোভিড পরীক্ষা হয়েছে।  প্রতি দিন যে সংখ্যক মানুষের পরীক্ষা হচ্ছে তার মধ্যে যত শতাংশের কোভিড রিপোর্ট পজিটিভ আসছে সেটাকেই বলা হচ্ছে পজিটিভিটি রেট বা সংক্রমণের হার। গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে সংক্রমণ হার ৮.৫৭ শতাংশ।

 

 

এখনও পর্যন্ত দেশে সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত মহারাষ্ট্র। সেখানে মোট আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে হয়েছে ৭,৩৩,৫৬৮ জন। মৃত্যু হয়েছে ২৩,৪৪৪ জনের। তার পরেই রয়েছে দক্ষিণের তিন রাজ্য। তামিলনাড়ু, অন্ধ্রপ্রদেশ ও কর্নাটক। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার দেওয়া তথ্য অনুযায়ী, গত ২৩ দিন ধরে বিশ্বে একদিনে করোনায় সংক্রমণের নিরিখে শীর্ষে রয়েছে ভারত। গত ২৪ ঘণ্টায়  আমেরিকা ও ব্রাজিলে নতুন আক্রান্তের সংখ্যা যথাক্রমে ৪৪ হাজার ৪৫১ ও ৪৪ হাজার ২৩৫ জন।আক্রান্তের নিরিখে বিশ্বে প্রথম স্থানে থাকা আমেরিকাতে মোট আক্রান্ত ৫৮ লক্ষ ৬৬ হাজার ও দ্বিতীয় স্থানে থাকা ব্রাজিলে ৩৭ লক্ষ ৬১ হাজার।