বলা যেতে পারে এক দৌড়েই ভাগ্য ঘুরে গেল ভারতীয় বোল্ট হিসেবে পরিচিত কর্নাটকের গ্রামের কম্বালা জকি শ্রীনিবাস গৌড়া-র। সম্প্রতি কর্নাটকের ম্যাঙ্গালোরে মোষের দৌড়ে তিনি ১৪২.৫ মিটার পথ দৌড়ান মাত্র ১৩.৬২ সেকেন্ডে। তারপরেই নেটিজেনরা পাটিগণিতের হিসাবে দেখেছিল ১০০ মিটার দৌড়তে তাঁর সময় লেগেছে ৯.৫৫ সেকেন্ড। যেখানে এই বিভাগে বোল্টের বিশ্বরেকর্ডের সময় ৯.৫৮ সেকেন্ড। সেই শ্রীনিবাস গৌড়া এবার পড়লেন ক্রীড়ামন্ত্রীর নজরে।

বিষয়টি কেন্দ্রীয় ক্রীড়ামন্ত্রী কিরেন রিজিজুর নজরে আনেন ব্যবসায়ী আনন্দ মাহিন্দ্রা। শ্রীনিবাস গৌড়ার কীর্তির বিষয়ে এক সংবাদমাধ্যমের প্রতিবেদন শেয়ার করে তিনি লেখেন শ্রীনিবাস-এর কাছ থেকে তিনি সোনার পদক আশা করছেন। কেন্দ্রীয় ক্রীড়ামন্ত্রী-কে ট্যাগ করে তিনি বলেন, ক্রীড়ামন্ত্রক হয় ১০০ মিটার দৌড়ের জন্য শ্রীনিবাস-কে প্রশিক্ষণ দিক। অথবা 'কম্বলা' খেলা-কে অলিম্পিকে অন্তর্ভূক্ত করা হোক। তিনি আরও বলেন, শ্রীনিবাসের শারীরিক গঠনই বলে দিচ্ছে সে কত বড় ক্রীড়াবিদ হতে পারে।

জবাবে ক্রীড়ামন্ত্রী কিরেন রিজিজু বলেছেন, তিনি সাই-এর শীর্ষ স্থানীয় কোচদের কাছে এসে ট্রায়াল দেওয়ার জন্য ডাকা হয়েছে শ্রীনিবাস-কে। ট্রেনের টিকিটও পৌঁছে গিয়েছে তাঁর কাছে। সোমবারই সাই-তে চলে আসবে তিনি। ক্রীডড়ামন্ত্রী আরও জানান, অলিম্পিকে প্রতিযোগিতার মান নিয়ে জনগণের জ্ঞানের অভাব রয়েছে। তবেল ভারতের কোনও প্রতিভা যাতে ফেলা না যায়, সেই বিষয়টি তিনি নিশ্চিত করবেন।

সংবাদসংস্থা এএনআই-কে দেওয়া এক সাক্ষাত্কারে শ্রীনীবাস গৌড়া বলেছেন, 'অনেকেই আমাকে উসাইন বোল্টের সাথে তুলনা করছে। তিনি বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন, আমি কেবল ছোট ধানি জমিতে দৌড়েছি।'