একজন সেনাকে অনেক ত্যাগ স্বীকার করতে হয়। দেশের সেবায় তাঁরা নিজেদের জীবন উৎসর্গ করে দেন। এই ত্যাগ স্বীকারের এক অদ্ভূত কাহিনি সামনে উঠে এসেছে। দুর্ভাগ্যক্রমে একটি ভারতীয় সেনা জওয়ান বিয়ে করার জন্য সময়ে বাড়িই পৌঁছতে পারলেন না।

সুনীল নামের এই জওয়ানের বাড়ি হিমাচল প্রদেশের মান্ডি-তে। তিনি আপাতত নিযুক্ত ছিলেন কাশ্মীরে। গত সপ্তাহান্তে তার বিয়ে হওয়ার কথা ছিল। বরযাত্রীদের প্রত্যেকে একেবারে তৈরি ছিলেন। মেয়ের বাড়ি মান্ডিরই লাদভাদল এলাকার দালেদ গ্রামে। ভেবেছিলেন শেষ মুহূর্তে হলেও সুনীল চলে আসবে। কিন্তু দুঃখের বিষয়, সুনীল মান্ডিতে পৌঁছতেই পারেননি।

তবে ঠিক সেনার কাজে সুনীল আটকে পড়েননি। তিনি ১ জানুয়ারিই ছুটি পেয়ে গিয়েছিলেন। কিন্তু দু'সপ্তাহ ধরে টানা তুষারপাতের জন্য তিনি কাশ্মীরের বান্দিপোরায় আটকে ছিলেন। সড়কপথ সব বন্ধ। বিমানও চলাচল করছে না। কোনও ভাবেই তিনি উপত্যকা থেকে বের হতেই পারেননি। সময় মতো নিজের বিয়েতে পৌঁছতে পারবেন না বুঝে সুনীল প্রথমেই ফোন করেন কনের পরিবার-কে। গোটা পরিস্থিতিটা তিনি তাঁদের ভালোভাবে বুঝিয়ে বলেন। তারপর নিদের বাড়ির লোকজনদের সঙ্গেও তিনি ফোনে কথা বলেন।

দুই পরিবারই কিছুটা উদ্বিগ্ন হয়ে পড়েন। তবে পরের দিন আবহাওয়ার অবস্থার উন্নতি হওযায় সুনীল নিরাপদে শ্রীনগরে পৌঁছান এবং শিগগিরই তাঁর মান্ডি-তে যাওয়ার কথা। চিনার কর্পসের অফিশিয়াল টুইটার অ্যাকাউন্টে সুনীলের এই দুর্ভাগ্যজনকভাবে বিয়ে মিস করার খবরটি জানানো হয়। সঙ্গে ক্যাপশনে লেখা হয়েছে, 'এক সেনার জীবনে আরও একটা দিন'। কনের বাড়ি থেকে অবশ্য সকলে সুনীলের জন্য গর্বিত। কনের কাকা বলেছেন, সুনীলের দেশসেবা নিয়ে তাদের পরিবার গর্বিত। তাঁরা এখন বিয়ের জন্য আরেকটি দিন ঠিক করতে চান।