লকডাউনের সময় রীতিমত জনপ্রিয় হয়ে উঠেছিল বেশ কয়েকটি মোবাইল অ্যাপলিকেশন। যারমধ্যে অন্যতম হল জুম কলস। ফেসবুক প্রতিপক্ষের জন্য কোনও জায়গা ছাড়তে নারাজ। তাই সম্প্রতি  ম্যাসেঞ্জোর রুমগুলির প্রবর্তন করেছে। তেমনই কি টিকটকের ফাঁকা বাজার ধরতে মরিয়া ইনস্টাগ্রাম? বুধবার সন্ধ্যে থেকেই ভারতে শুরু হয়েছে ইন্টস্টাগ্রাম রিল। যা নিয়ে রীতিমত জল্পনা শুরু হয়েছে গোটা দেশে। 

অল্পসময়ের ভিডিও পোস্ট করার জন্য রীতিমত জনপ্রিয়তা অর্জন করেছিল টিকটক। দেশের বেশ কয়েকজন প্রতিভাবান টিকটকের মাধ্যমেই রুজিরুটির সংস্থান করতেও শুরু করেছিলেন। কিন্ত পূর্ব লাদাখ সীমান্ত নিয়ে চলমান বিবাদের জেরে ও দেশের নিরাপত্তার কথা চিন্তা করে ভারত ৫৯টি চিনা অ্যাপ বন্ধ করার সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেছে। আর সেই কারণে এদেশে বন্ধ হয়েগেছে টিকটক। 

আর টিকটকের সেই ফাঁকা মাঠ দখল করতেই আসরে নেমেছে ইন্টাগ্রাম। ইন্টাগ্রাম রিল-এর মাধ্যমে ১৫ সেকেন্ডের ভিডিও পোস্ট করা যাবে। এটি এখনও পরীক্ষা নিরীক্ষার পর্যায় রয়েছে। কবে থেকে আনুষ্ঠানিভাবে বাজারে আসবে তাও জানান হয়নি সংস্থার পক্ষ থেকে। ভালো সাড়া পেলে এটি খুব তাড়াতাড়া ইনস্টাগ্রাম ব্যবহারকারীদের হাতে চলে যাসবে বলেই সংস্থা সূত্রের খবর।  তবে রিল পরিষেবা পেতে গেলে অবশ্যই মোবাইলের ইন্টাগ্রাম অ্যাপলিকেশন আপডেট করতে হবে। ইন্টারফেসের সহজ ব্যবহারের জন্য টিকটক রীতিমত জনপ্রিয়তা পেয়েছিল। কিন্তু রিল-এর ব্যবহার কিছুটা হলেও জটিল। তবে  অ্যাপ-বিশেষজ্ঞরা অবশ্য বলছেন কিছুদিন ব্যবহারের পরই এটি আয়ত্বে এসে যাবে। 


আইটিটিভির মতোই ইন্সাট্রাম প্রোফাইলে একটি পৃথক বিভাগ রিল যুক্ত করেছে। আপনার মোবাইল ক্যামেরার মাধ্যমেই শ্যুট করা ভিডিও রিল-এর মাধ্যমে নেটদুনিয়া পৌছে যেতে পারবে। টিকটকের মত রিলসে স্পিড, এফেক্ট, অডিও-র মত ব্যবস্থাগুলি রয়েছে। মূল ভয়েস রেকর্ড করা যেতে পারে। যদি প্রকাশ্যে উপলব্ধ থাকে তাহলে অন্যেরাও ব্যবহার করতে পারে। 

তবে রিল-এ মাত্র ১৫ মিনিটের ভিডিও আপলোড করা সম্ভব। যদি রেকর্ড আরও দীর্ঘ সময়ের হয় তাহলে তাহলে ইনস্টাগ্রাম নিজেই সেগুলিকে ১৫ সেকেন্ডে ভাগ করে নিয়ে আপলোড করবে। যদি ভিডিও খুব লম্ব সময়ের হয় তারজন্য রয়েছে আইজিটিভি। 

রিল রেকর্ড করার জন্য লাইব্রেরি থেকে অডিও সংগ্রহ করতে পারেন। যদি চান তো নিজেও রোকর্ড করতে পারেন কোনও গল্প কবিতা বা গান। ইনস্টাগ্রামে বেশ কয়েকটি গানের লেবেলও রয়েছে। 

আপনার রিলটি স্বীকৃত হবে কী নি তা নির্ভর করতে সেটি আপনি কাদের সঙ্গে শেয়ার করছেন। আপনার যদি সর্বজনীন অ্যাকাউন্ট থাকে তাহলে আপনি এক্সপ্লোরারে পোস্ট করে রিলস ইনস্টাগ্রামে সবার সঙ্গে শেয়ার করতে পারেন। আর যদি ব্যক্তিগত অ্যাকাউন্ট থাকে তাহলে অনুসরণকারী বা ব্যবহারকারীদের সঙ্গে কেবল ফিডে শেয়ার করতে পারবেন। 

বর্তমানে রিলের জন্য টিকটকের মত ট্রেন্ডিং বিষয় খোঁজে বার করতে হবে না। পাশাপাশি রিল ব্যবহারকারীদের টাকা দেওয়ারও কোনও ব্যবস্থা এখনও শুরু হয়নি। 

ভারতে টিকটক ব্যবহারকারীর সংখ্যা ছিল প্রায় ২ কোটি। যাঁরা মূলত ছোট শহর ও শহরতলীর বাসিন্দা। ফেসবুকের মালিকানাধীন ইনস্টাগ্রাম সেইসব টিকটক ব্যবহারকারীদের আকর্ষণ করতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা গ্রহণ করেছে। বিশ্বের চতুর্থতম দেশ হিসেবে ভারতে এই পরিষেবা নিয়ে আসছে ইনস্টাগ্রাম।