দুদিন সময় নিলেন, তারপরই অপর্না সেনদের চিঠির পাল্টা দিলেন ৬১ জন মোদী অনুরাগী বুদ্ধিজীবী। যাঁদের মধ্যে রয়েছেন  অভিনেত্রী কঙ্গনা রানাওয়াত, লিরিসিস্ট প্রসুন যোশী, ক্লাসিকাল নৃত্যশিল্পী তথা রাজ্যসভার সাংসদ সোনাল মানসিং, যন্ত্রশিল্পী পণ্ডিত বিশ্বমোহন ভট্ট, চিত্র নির্মাতা মধুর ভান্ডারকর, বিবেক অগ্নিহোত্রি প্রমুখ। তাঁদের অভিযোগ অপর্ণা সেন, শ্যাম বেনেগালদের পাঠানো চিঠি আদতে নির্বাচিত ক্ষোভ প্রদর্শন ও মিথ্যা বর্ণনা।  

গত ২৩ জুলাই প্রধানমন্ত্রীকে এক খোলা চিঠিতে অপর্ণা সেনদের মতো ৪৯ জন বিশিষ্ট ব্যক্তি জানিয়েছিলেন জয়শ্রীরাম বলে দেশ জুড়ে মুসলিম ও দলিতদের উপর হামলা করা হচ্ছে। এই নিয়ে গভীর উদ্বীগ্ন তাঁরা। এই বিষয়টি এখনই বন্ধ করার জন্য ব্যবস্থা নিতে প্রধানমন্ত্রীকে আর্জি জানান তাঁরা।

এই চিঠি তাঁদের 'অবাক' করেছে বলে জানিয়েছেন কঙ্গনারা। তাঁদের মতে আন্তর্জাতিক ক্ষেত্রে ভারতের অবস্থানের অবনতি ঘটানোর লক্ষ্যেই ওই চিঠি পাঠানো হয়েছে। আরও অভিযোগ যখন নকশালরা আদিবাসীদের উপর অত্যাচার চালায় বা কাশ্মীরি বিচ্ছিন্নতাবাদীরা ভারতকে ভাগ করার হুমকি দেয় তখন এঁদের বিবেক কোথায় থাকে? সেইসব ক্ষেত্রে তো তাঁরা মুখে কুলুপ এঁটে থাকেন।