বৃহস্পতিবার কর্নাটক বিধান সভার আস্থা ভোট। তার আগের রাতেই বেঙ্গালুরুতে কংগ্রেস বিধায়করা যে রিসর্টে ছিলেন, সেখান থেকে হঠাতই উধাও হয়ে গিয়েছিলেন কংগ্রেস বিধায়ক শ্রীমন্ত পাতিল। অবশেষে এদিন সকালে তাঁর খোঁজ মিলল মুম্বইয়ের এক হাসপাতালে। বুকে ব্যথা অনুভব করায় নাকি তিনি বেঙ্গালুরু থেকে চেন্নাই হয়ে মুম্বই উড়ে এসে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন।

অবশ্য শুধু তিনি একাই নন, তাঁর মতোই তুচ্ছ শারীরিক সমস্যার দোহাই দিয়ে হাসপাতালে ভর্তি হযে গিয়েছেন আরেক কংগ্রেস বিধায়ক বি নগেন্দ্রও। তিনি অবশ্য বেঙ্গালুরুর এক হাসপাতালেই আছেন। এইরকম বিভিন্ন কারণ দেখিয়ে এদিন বিধানসভায় গড়হাজির কংগ্রেস-জেডিএস জোটের মোট ২০ জন বিধায়ক। এঁদের মধ্য়ে কংগ্রেসের আচেন ১৪ জন, ডেজিএস-এর তিনজন বিএসপি-এর একজন ও নির্দল বিধায়ক দুইজন।

আস্থা ভোটের আলোচনায় এইদিন এই অনুপস্থিত বিধায়কদের নিয়েই তর্ক-বিতর্কে উত্তাল কর্নাটক বিধানসভা।  কংগ্রেস নেতা ডিকে শিবকুমার শ্রীমন্ত পাতিলের হাসপাতালে শুয়ে থাকার ছবি নিয়ে এসে বিধানসভায় জানান, মোট আটজন বিধায়ক একসঙ্গে মুম্বই চলে গিয়েছেন। দীনেশ গুন্ডু রাও-এর প্রশ্ন, রিসর্টের কাছেই হাসপাতাল থাকতে তাঁকে কেন মুম্বই গিয়ে হাসপাতালে ভর্তি তে হল? বিজেপি ষড়যন্ত্রেই এইসব হচ্ছে বলে সরাসরি অভিযোগ করেছেন কংগ্রেস ও জেডিএস বিধায়করা।