একটাই বাড়ি, আর সেখানেই থাকেন তিন জন, যাদের কাম ক্যানন এপসন আর নিকক। নামগুলি উচ্চারণের সঙ্গে সঙ্গে মনে পড়ে যায় ক্যামেরার কথা। বর্তমানে মুঠো ফোনের জমানায় কিছুটা হলেও জনপ্রিয়তা হারিয়েছে ক্যামেরা। কিন্তু সত্যিকারের ফটোগ্রাফি করতে যাঁরা ভালোবাসের তাঁদের কাছে এখনও ক্যামেরার কদর রয়েছে। আসুন তেমনই এক ফোটোগ্রাফার দম্পতির সঙ্গে আপাল করিয়েদিন আপনাদের- যাঁদের প্যাসান ফোটোগ্রাফি। সন্তানদের নাম শুনে তা অবশ্য কিছুটা হলেই আন্দাজ করা গেছে। 

কর্নাটকের বেলগাউমের বাসিন্দা ক্রুপা হনগাল আর রবি হনগাল। দম্পতি একটি বাড়ি তৈরি করেছেন যেটি ক্যামেরার আদলে। আর সেই বাড়ির নাম দিয়েছেন ক্লিক। দম্পতির কথায় স্বপ্নের এই বাড়ি তৈরির জন্য তাঁরা বিক্রি করে দিয়েছেন তাঁদের পুরনো বাড়ি। অন্দর সজ্জাও আরও পাঁচটা বাড়ির মত নয়। কারণ ঘরের ভিরতে ও দেওয়ালে ফোটোগ্রাফির সঙ্গে জড়িত একাধিক গ্রাফিক্স রয়েছে।  ১৯৮৬ সাল থেকেই ফোটোগ্রাফি করছেন বরি। 

স্বামীর স্বপ্ন পুরণ হতে দেখে খুশি স্ত্রী। তিনি জানিয়েছেন তাঁর স্বামী ফোটোগ্রাফি করতে ভালোবাসেন। আর তিনিও তা পছন্দ করেন। পাশাপাশি তিনি জানিয়এছেন তাঁর ক্যামেরার ভিরত থাকছেন, এটা  ভেবেই নাকি খুব উৎসাহিত। এই বাড়িটি তৈরি করছে তাঁদের ৯৫ হাজার মার্কিন ডলার খরচ হয়েছে বলেও জানিয়েছেন তিনি। 
চলুন দেখেনিন কর্নাটকের ফোটেগ্রাফার দম্পতির অদ্ভূত দর্শন বাড়ি 

আর দম্পতির বাড়ির ছবি ইতিমধ্যেই ভাইরাস সোশ্যাল মিডিয়ায়।