নাগরিকত্ব আইনের বিরোধিতা করে প্রথম রাজ্য হিসেবে এবার সুপ্রিম কোর্টে মামলা দায়ের করল কেরল সরকার। নতুন আইন সংবিধানে উল্লিখিত সমানাধিকারের পরিপন্থী বলে দাবি করে সুপ্রিম কোর্টে মামলা দায়ের করেছেন পিনারাই বিজয়ন সরকার। 

অবিজেপি সরকার থাকা বহু রাজ্যই নাগরিকত্ব আইন কার্যকর করবে না বলে জানিয়ে দিয়েছে। কিন্তু প্রথম রাজ্য হিসেবে এই আইনের বিরুদ্ধে সুপ্রিম কোর্টে গেল কেরল সরকারই। প্রথম রাজ্য হিসেবে বিধানসভাতেও প্রস্তাব এনেছিল কেরল সরকার। 

নাগরকিত্ব আইনের পাশাপাশি পাসপোর্ট আইন এবং ফরেনার্স অ্যাক্ট রুলস- কেও চ্যালেঞ্জ করেছে কেরলের ক্ষমতাসীন বাম গণতান্ত্রিক জোট সরকার। 

আরও পড়ুন- নাগরিকত্ব আইন নিয়ে তীব্র অসন্তোষ, বিবৃতি জারি মাইক্রোফট সিইও সত্য নাদেলা-র

হলফনামায় কেরল সরকারের তরফে দাবি করা হয়েছে, নাগরিকত্ব আইন সংবিধানের ১৪, ২১ এবং ২৫ নম্বর ধারা এবং ভারতের মূল ধর্মনিরপেক্ষ ভিত্তির বিরোধী। 

সংবিধানের ১৪ নম্বর ধারায় সমানাধিকারের কথা বলা হয়েছে। ২১ নম্বর ধারায় বলা হয়েছে 'আইনের বিরোধী না হলে কারওরই ব্যক্তি স্বাধীনতা এবং বেঁচে থাকার অধিকার কেড়ে নেওয়া যাবে না। আর ২৫ নম্বর ধারা সব মানুষকেই স্বাধীনভাবে ধর্মাচারণের অধিকার দেয়।