দিল্লিতে ফের আত্মহত্যার ঘটনা। এবার আত্মঘাতী হয়েছেন স্বামী-স্ত্রী। এই ঘটনা দিল্লির মঙ্গল্পুরি এলাকায়। পুলিশ  সূত্রে দাবি করা হয়েছে, মহিলা অন্তঃস্বত্তা ছিলেন। তাদের দেহ ময়নাতদন্তের জন্য পাঠানো হয়েছে। ঠিক কী কারণে তাঁরা আত্মহত্যার পথ বেছে নিলেন তা এখন স্পষ্ট নয়। এ ব্যাপারে পুলিশি তদন্ত করছে। 

দিল্লিতে আরও একটি আত্মহত্যার ঘটনা ঘটেছে। জানা গিয়েছে পাহাড়গঞ্জের একটি হোটেলে ২২ বছরের এক তরুণী গলায় ফাঁস লাগিয়ে আত্মহত্যা করেন। জানা গিয়েছে রোজি নামে এই তরুণী এবং তাঁর বয়ফ্রেন্ড ওই হোটেলে রুম বুক করেছিলেন। রবিবার হোটেলেই ছিলেন রোজি। এরপর সোমবার সকালে হোটেল রুম থেকে রোজির ঝুলন্ত দেহ উদ্ধার হয়। রোজি এবং তাঁর বয়ফ্রেন্ড দিল্লির তিলক নগরের বাসিন্দা। দিল্লি পুলিশ রোজি-র বয়ফ্রেন্ডকে আত্মহত্যায় প্ররোচনা দেওয়ার অভিযোগে গ্রেফতার করেছে। জানা গিয়েছে, রোজির সঙ্গে বয়ফ্রেন্ডের হোটেলরুমে ঝগড়া হয়েছিল। এরপর ওই বয়ফ্রেন্ড হোটেল রুম থেকে বেরিয়ে যায়। আর ফিরে আসেনি। 

গত এক বছরে দিল্লিতে মারাত্মকভাবে দম্পতি-দের আত্মহত্যার ঘটনা ঘটছে। এদের মধ্যে বেশিরভাগই প্রেমিক-প্রেমিকা। যাদের বিয়েও হয়নি। কিন্তু সমাজিক চাপে এঁরা আত্মহত্যার পথ বেছে নিচ্ছেন। দিল্লির বুকে হওয়া গত ২৪ ঘণ্টায় এই দুই আত্মত্যার ঘটনা স্বাভাবিকভাবে সামাজিক বিভিন্ন ব্যবস্থাকে কাঠগড়ায় তুলে দিয়েছে। দিন দুই আগেই শিলিগুড়ি মেডিক্যাল কলেজে মেয়েদের হস্টেল থেকেও এক ছাত্রীকে অগ্বিদ্গদ্ধ অবস্থায় উদ্ধার করা হয়।