সম্প্রতি একটি সর্বভারতীয় সংবাদ মাধ্যমে সাক্ষাতকারে এসেছিলেন  কেন্দ্রীয় সংখ্যালঘু বিষয়ক মন্ত্রী মোক্তার আব্বাস নাকভি। সেখানে তিনি বলেন যে, কাউকেই জোড় করে জয় শ্রী রাম বলানো উচিত নয়। 

প্রসঙ্গত, গত মাসে তাঁকে জয় শ্রী রাম এবং জয় হনুমান বলতে বাধ্য করা হয় ২৪ বছর বয়সী তাবরেজ আনসারিকে। এরপর উত্তেজিত জনতা তাঁকে খুঁটির সঙ্গে বেঁধে মারধর করেছিল উত্তেজিত জনতা। সম্প্রতি ঝাড়খন্ড সরকারের তরফ থেকে পেশ করা একটি রিপোর্টে বলা হয়েছে যে, ২৪ বছর বয়সী তাবরেজ আনসারিকে পিটিয়ে মারার পিছনে পুলিশ ও চিকিৎসকের গাফিলতি ছিল।  আর এরপরই বিজেপির মন্ত্রী মোক্তার আব্বাস নাকভি মন্তব্যকরেন যে, কাউকে কখনওই জয় শ্রী রাম বলতে বাধ্য করা যায় না। 

তিনি আরও দাবি করেন যে,গণপ্রহারের ঘটনা রুখতে সরকার যথেষ্ট কড়া পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে। তিনি আরও বলেন যে, প্রত্যেকক্ষেত্রেই গণপ্রহারের মতো ঘটনার সঙ্গে যুক্ত ব্যক্তিদের শাস্তি দেওয়া হয়েছে। রাজস্থানে জামিন পায়নি  এক অভিযুক্ত, পাশাপাশি উত্তরপ্রদেশেও এই ধরণের একটি ঘটনায় অভিযুক্ত কয়েকঘণ্টার মধ্যে ধরেছে পুলিশ। ঘটনা যাই ঘটে থাক না কেন অপরাধীর বিরুদ্ধে তৎক্ষণাৎ ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। 

এই প্রসঙ্গে তিনি  আরও বলেন যে, কেউই কাউকে কিছু জোর করে বলতে বাধ্য করাতে পারে না। সেক্ষেত্রে কিন্তু কেউ বন্দে মাতরম গাইতে আপত্তি প্রকাশ করতে পারে না। সেক্ষেত্রে সব পক্ষকেই নমনীয় হতে হবে বলে মত প্রকাশ করেন তিনি। তিনি আরও বলেন যাঁরা দেশের প্রগতির পথে বাধা সৃষ্টি করেন তাঁদের কাউকেই দল ছাড়বে না।