অযোধ্যার রামমন্দিরের ভূমিপূজা অনুষ্ঠান হয়ে যাওয়ার পরও বিতর্ক থামছে না। এবার, এই দীর্ঘদিনের বিতর্কিত বিষয় নিয়ে সুপ্রিম কোর্টের রায় ঘিরেও তৈরি হল বিতর্ক। আর সেই প্রসঙ্গে কথা বলতে গিয়ে ভারতের প্রাক্তন প্রধান বিচারপতি রঞ্জন গগৈ-এর বিরুদ্ধে অত্যন্ত আপত্তিজনক মন্তব্য করে বসলেন বিখ্যাত উর্দু কবি মুনাওয়ার রানা।

রাম জন্মভূমি-বাবরি মসজিদ জমি বিতর্ক মামলায় সুপ্রিম কোর্টের রায় মুনাওয়ার-এর মতে কোনও ন্যায়বিচার নয়। এটা শুধুই একটা আদেশ মাত্র। এরপরই অবসর নেওয়ার পরই প্রাক্তন প্রধান বিচারপতির রাজ্যসভায় মনোনয়ন পাওয়া নিয়ে প্রশ্ন তোলেন তিনি। রঞ্জন গগৈ-এর রাজ্যসভার আসন গ্রহণ করাটা বিচার ব্যবস্থার প্রকৃত ছবিটা নগ্ন করে দিয়েছে বলে মন্তব্য করেন তিনি। এরপরই তিনি বলেন, অযোধ্যা রায় রামলাল্লার পক্ষে দেওয়ার জন্য 'নিজেকে বিক্রি' করে দিয়েছিলেন তৎকালীন প্রধান বিচারপতি গগৈ।

গত নভেম্বর মাসে রঞ্জন গগৈ-এর অবসরের ঠিক আগে তাঁর নেতৃত্বে গঠিত পাঁচ বিচারকের বেঞ্চ দীর্ঘ কয়েক দশক ধরে চলা অযোধ্যায় বিতর্কিত জমি মামলার নিষ্পত্তি ঘটিয়েছিল। একটি ট্রাস্ট গঠন করে ওই জমিতে রামমন্দির নির্মাণের নির্দেশ দেওয়া হয়েছিল। ওই বেঞ্চে গগৈ ছাড়া ছিলেন বর্তমান প্রধান বিচারপতি এস এ বোবদে, বিচারপতি ডিওয়াই চন্দ্রচুড়, বিচারপতি অশোক ভূষণ এবং বিচারপতি এস আবদুল নজির। রায়ের বিষয়ে একমত হয়েছিলেন ৫ জনই। তবে দেশের বিভিন্ন অংশ থেকেই বাবরি মসজিদ ভাঙা চরম অপরাধ বলে গন্য করেও, শুধুমাত্র হিন্দুদের বিশ্বাস বলে জমিটি কেন রামলাল্লাকে দেওয়া হল, এই প্রশ্ন উঠেছে।

রাম মন্দিরের রায় দেওয়ার পর ২০১৯ সালের ১৭ নভেম্বর অবসর গ্রহণ করেছিলেন রঞ্জন গগৈ। ২০২০ সালের ১৬ মার্চ রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোভিন্দ তাঁকে রাজ্যসভায় সাংসদ হিসাবে মনোনীত করেছিলেন।