জলবায়ু পরিবর্তনের ইস্যুতে ঐক্যবদ্ধভাবে লড়াই করতে হবে। ১৫তম জি সামিটের বৈঠকে এমনই মন্তব্য করেন প্রাধনমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। তিনি আরও বলেন পরিবেশের সঙ্গে সামঞ্জস্য রেখে সমগ্র নীতি রূপায়িত করতে হবে। ভারত কার্বন নিঃসরণ অনেকটাই কমিয়ে ফেলেছে। তিনি আরও বলেন প্যারিস চুক্তি লক্ষ্যমাত্র শুধু পুরণই করেনি ভারত। তা ছাপিয়ে গেছে বলেও মন্তব্য করেন তিনি। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী বলেন জলবায়ু পরিবর্তেন বিরুদ্ধে লড়াই আগামী দিনে মূল লক্ষ্য হওয়া উচিৎ বলেও মন্তব্য করেন তিনি। 

জি সামিটের দ্বিতীয় দিনে প্রধানমন্ত্রী বলেন, উন্নত দেশগুলির প্রযুক্তি ও আর্থিক সাহায্য পেলে বিশ্বের সব দেশ দ্রুত উন্নতি করতে পারবে। দ্বিতীয় বিশ্ব যুদ্ধের পর করোনাভাইরাসের এই মহামারি বিশ্বের কাছে সবথেকে বড় চ্যালেঞ্জ। তিনি আরও বলেন মানবতার সমৃদ্ধির জন্য প্রত্যের ব্যক্তিকে অবশ্যই সমৃদ্ধ হতে হবে। আর সেক্ষেত্রে শ্রম অত্যান্ত গুরুত্বপূর্ণ। শ্রমিকের মানবিক মর্যাদার দিকেই গুরুত্ব দেওয়া প্রয়োজন বলেও তিনি মন্তব্য করেন। 

প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী আরও বলেন এজাতীয় দৃষ্টভঙ্গি গ্রহের সুরক্ষার জন্য জরুরি। তিনি আরও বলেন আগামী ২০৩০ সালের মধ্যে ২৬ মিলিয়ন অবক্ষয়যুক্ত জমি ফিরিয়ে নেওয়ার লক্ষ্যমাত্র গ্রহণ করেছে ভারত। যা দেশের অর্থনীতিতেও গুরুত্বপূর্ণ বলে তিনি দাবি করেন। তিনি আরও বলেন জলবায়ু পরিবর্তেন বিরুদ্ধে গোটা বিশ্বকে ঐক্যবদ্ধ হয়ে লড়াই করতে হবে।