দ্বিতীয়বার ক্ষমতায় আসতে চলছে মোদী  সরকার। ক্ষমতা দখলের পরেই নেতাজি সুভাষচন্দ্র বসু-কে বিরল সম্মান দিতে তৈরি মমতার সরকার।  চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত হবে মন্ত্রিসভা গঠনের পরে, তবে এখনই বেশ কিছু প্রস্তাবে মৌখিক শিলমোহর দেওয়া হয়ে গিয়েছে বলে সূত্রের খবর। 

স্থির হয়েছে, ২১ অক্টোবর দিনটিকে জাতীয় স্তরে আজাদ হিন্দ দিবস বলে পালন করা হবে। একই সঙ্গে এই সরকার স্বাধীন ভারতের প্রধান প্রথম প্রধানমন্ত্রী হিসেবে মর্যাদা দিতে পারে নেতাজিকে।

প্রসঙ্গত নেতাজির নেতৃত্বে শহীদ স্বরাজ দ্বীপ অর্থাৎ আন্দামান নিকোবর দ্বীপপুঞ্জ ও ইমফলে জাতীয় পতাকা তুলেছিল আজাদ হিন্দ বাহিনী। তাঁর আজাদ হিন্দ সরকা কে মর্যাদাও দেয় নয়টি দেশ। এই নয়টি দেশের সহযোগিতা ও সম্মতি পেলে এই প্রস্তাবে সবুজ সঙ্কেত দেবে কেন্দ্রীয় সরকার। কেন্দ্রীয় সরকারের দীর্ঘদিনের অভিযোগ আগের সরকার নেতাজীর প্রতি সুবিচার করেনি। ৭০ তম প্রজাতন্ত্র দিবসে মোদী সরকার আজাদ হিন্দ বাহিনীর জীবিত সদস্যদের সম্মাননাও জ্ঞাপন করে। অতীতে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ও কেন্দ্রে কাছে আবেদন জানিয়েছে নেতাজীর জন্মদিনে জাতীয় ছুটি ঘোষণা করতে। এবার কেন্দ্রের উদ্যোগ ফলপ্রসু হলে আজাদ হিন্দ বাহিনীর জন্মদিন লালকেল্লায় পতাকা উত্তোলন, নেতাজীকে শ্রদ্ধা জ্ঞাপন অনুষ্ঠান হতে পারে। জাতীয় ছুটিও ঘোষণা হতে পারে।

নেতাজি গবেষক জয়ন্ত চৌধুরীর কথায়, প্রধানমন্ত্রীর এই আগ্রহ খুবই সদর্থক দেশের 'জনগণ আজাদ হিন্দ বাহিনীর পুরো ইতিহাসটা জানতে পারলে উদ্বুদ্ধ হবে তরুণ প্রজন্ম।'