আয়ুষ প্রকল্প গড়ে তোলার কথা এর আগে কেন্দ্রীয় সরকারের তরফে ঘোষণা করা হয়েছিল। শুক্রবার প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী জানিয়েছেন, সারা ভারত জুড়ে আয়ুষ -এর সেন্টার গড়ে তোলা হবে। লক্ষ্য সারা ভারত জুড়ে প্রায় ১২,৫০০ সেন্টার তৈরি করা হবে বলে জানা গিয়েছে। আপাতত চলতি বছরে প্রায় ৪০০০ আয়ুষ সেন্টার গড়ে তোলার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে বলে খবর। 

কী এই আয়ুষ প্রকল্প?- ইংরেজিতে Ayush-এর প্রত্যেকটি অক্ষরের আলাদা আলাদা অর্থ রয়েছে, A-তে আয়ুর্বেদ, Y-তে যোগ, N-এ নেচারোপ্যাথি, U-তে ইউনানি, S-এ সিদ্ধা, H- এ হোমিওপ্যাথি। এই দর্শনের ওপর ভর করেই কেন্দ্রীয় সরকারের তরফে এই অভিনব একটা প্রকল্প শুরু হতে চলেছে। 

 

আন্তর্জাতিক সুস্বাস্থ্য গড়ে তোলার পক্ষে এগিয়েছে কেন্দ্রীয় সরকার। এদিন যোগ পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে এসে প্রধানমন্ত্রী বলেন, সারা ভারত জুড়ে ১২,৫০০ টি আয়ুষ স্বাস্থ্য ও সুস্বাস্থ্য দফতর গড়ে তোলা হয়েছিল। মোদী এদিন আরও জানান, চলতি বছরেই ৪০০০টির বেশি আয়ুষ কেন্দ্র গড়ে তোলা হবে। এদিন দিল্লির আয়ুষ মন্ত্রক আয়োজিত যোগ পুরস্কার প্রদান অনুষ্ঠানে এসে নরেন্দ্র মোদী বলেন, হরিয়ানা-তে আজ ১০টি আয়ুষ কেন্দ্র উদ্বোধন করা হয়েছে। এই পুরষ্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে এসে প্রধানমন্ত্রী বলেন, আয়ুষ এবং যোগ ফিট ইন্ডিয়া মুভমেন্টের দুটি গুরুত্বপূর্ণ স্তম্ভ। 

শুধু তাই নয়, প্রাচীন ভারতে যোগের যে শিকড়গুলি নিহিত রয়েছে সেই প্রসঙ্গও এদিন উঠে এল প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর গলায়। পাশাপাশি আয়ুর্বেদ এবং যোগশাস্ত্র নিয়ে মহাত্মা গান্ধীর চিন্তাভাবনাকে তিনি তুলে ধরে এনে বলেন, মহাত্মাই অন্যতম যিনি প্রাকৃতিক চিকিৎসাককে ব্যবহার করে  জীবনযাত্রার মান উন্নয়নের পথ বাতলে দিয়েছিলেন মহাত্মা গান্ধী। শুধু তাই নয় প্রধানমন্ত্রী আরও বলেন, নয়া দিল্লিতে যোগের প্রচার এবং উন্নয়নের জন্য অসামান্য অবদান রেখে গিয়েছেন।