গোটা বিশ্ব করোনাভাইরাসের বিরুদ্ধে লড়াই করছে। সংক্রমণ রুখতে অধিকাংশ দেশই লকডাউনের পথে হেঁটেছে। আর তাতে রীতিমত ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে বিশ্বের অর্থনীতি। সেই তালিকায় যেমন নাম রয়েছে ধনী দেশগুলির, পিছিয়ে নেই উন্নয়নশীল দেশগুলিও। কোনও দেশ কীভাবে লড়াই করছে তা নিয়েও যথেষ্ট কৌতূহল রয়েছে বিশ্বে। অনেক দিন আগেই মহামারি রুখতে ঐক্যবদ্ধ প্রয়াসের কথা বলেছিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। সার্কভুক্ত দেশগুলির বৈঠকেও ঐক্যবদ্ধ পদক্ষেপের কথা বলেছিলেন। তিনি আরও একবার সেই পদক্ষেপ গ্রহণ করলেন।  বুধবার প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী টেলিফোনে কথা বলেন সৌদির রাজা সালমান বিন আবদুলাজিজ আল সৌদের সঙ্গে। দুই দেশই দুই দেশের প্রধানই মহামারির বিরুদ্ধে লড়াই নিয়ে কথা বলেছেন। মহামারির গোটা বিশ্বে যে চ্যালেঞ্জ ছুঁড়ে দিয়েছে তা নিয়েও আলোচনা করেছেন দুই দেশের প্রধান। 

জি-২০ অন্তর্গত দেশগুলিকে নেতৃত্ব দেওয়ার জন্য প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী সৌদিক রাজার কাছে কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেছেন। জি-২০ ভুক্ত দেশগুলি মহামারির বিরুদ্ধে লড়াই করতে ঐক্যবদ্ধভাবেই আসরে নেমেছে। আর সেই লড়়াইয়ে পারস্পরিক সহযোগিতা করারও প্রতিশ্রুতি দিয়েছে। জি-২০ অ্যাজেন্ডায় বর্তমানে মহামারির বিষয়গুলিকেই প্রাধান্য দেওয়ার বিষয় নিয়ে আলোচনা করা হয়েছিল বুধবারের বৈঠকে। 

ভারত ও সৌদি আবরের মধ্যে দ্বিপাক্ষিক সম্পর্কের বিষয় নিয়ে দুই রাষ্ট্রপ্রধানই সন্তুষ্টি প্রকাশ করেছেন। আর সকল বিষয়ে সহযোগিতা আরও জোরদার করার দিকেও প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন।  মহামারির এই সময় প্রবাসী ভারতীয়দের দেশে ফিরিয়ে আনতে সৌদির রাজা সহযোগিতা করেছিলেন বলেও এদিন বৈঠকে প্রধানমন্ত্রী তাঁকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী সৌদি রাজপরিবারের সকল সদস্য আর  সৌদির বাসিন্দারের সুস্থতাও কামনা করেছেন বলে জানান হয়েছে। 

"