২০১৯-২০ সালে স্টাফ সিলেকশন কমিটি এইসব শূন্যপদের মধ্যে ১,০৫,৩৩৮টি পূর্ণ করার কাজ শুরু করেছে। ২০১৭-১৮ সালে রেলমন্ত্রক ও রেল রিক্রুটমেন্ট বোর্ড-ও ১,২৭,৫৭৩টি শূন্যপদে লোক নিয়েছে। ২০১৮-১৯'এ গ্রুপ সি ও লেভেল ওয়ান মিলিয়ে মোট ১,৫৬,১৩৮টি শূন্যপদ পূর্ণ করার কাজ শুরু হয়েছে। শূ্যপদ পূরণের কাজ করচে ডাক বিভাগ-ও। ১৯,৫২২টি শূন্যপদ পূরণের জন্য ইতিমধ্যেই পরীক্ষা নেওয়া হয়েছে। অর্থাৎ, এই তিন দপ্তর থেকে মোট ৪,০৮,৫৯১ টি শূন্যপদ পূরণের কাজ চলছে।


কেন্দ্রীয় সরকারের প্রায় সাত লক্ষ পদ ফাঁকা পড়ে রয়েছে। বৃহস্পতিবার রাজ্যসভায় এই তথ্য দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রীরদপ্তরের প্রতিমন্ত্রী জিতেন্দ্র সিং। তিনি জানান, ২০১৮ সালের ১ মার্চের তথ্য অনুযায়ী মোট ৬,৮৩,৮২৩ শূন্যপদ রয়েছে কেন্দ্রীয় সরকারে। এরমধ্যে গ্রুপ সি পদ রয়েছে ৫,৭৪,২৮৯টি, গ্রুপ বি ৮৯,৬৩৮, ও গ্রুপ এ-র শূন্যপদ রয়েছে ১৯,৮৯৬টি।  

২০১৯-২০ সালে স্টাফ সিলেকশন কমিটি এইসব শূন্যপদের মধ্যে ১,০৫,৩৩৮টি পূর্ণ করার কাজ শুরু করেছে। ২০১৭-১৮ সালে রেলমন্ত্রক ও রেল রিক্রুটমেন্ট বোর্ড-ও ১,২৭,৫৭৩টি শূন্যপদে লোক নিয়েছে। ২০১৮-১৯'এ গ্রুপ সি ও লেভেল ওয়ান মিলিয়ে মোট ১,৫৬,১৩৮টি শূন্যপদ পূর্ণ করার কাজ শুরু হয়েছে। শূন্যপদ পূরণের কাজ করছে ডাক বিভাগ-ও। ১৯,৫২২টি শূন্যপদ পূরণের জন্য ইতিমধ্যেই পরীক্ষা নেওয়া হয়েছে। অর্থাৎ, এই তিন দপ্তর থেকে মোট ৪,০৮,৫৯১ টি শূন্যপদ পূরণের কাজ চলছে।

এছাড়া ব্যাকলগ হিসেবে তফসিলি জাতি উপজাতি সম্প্রদায়ভূক্ত ও অন্যান্য পিছিয়ে পড়া উপজাতির জন্য সংরক্ষিত পদও শূন্য পড়ে রয়েছে। কেন্দ্রীয় সরকারের মোট দশটি মন্ত্রক ও দপ্তরেই রয়েছে এর ৯০ শতাংশ শূন্যপদ। ২০১৭ সালের ৩১ শে ডিসেম্বরের তথ্য অনুযায়ী এই দশ দপ্তরের ছয়টিতে ,এসসিদের ব্যাকলগ সূন্যপদ ছিল ১৩,৯৬৮টি। আর এসটিদের ব্যাকলগ শূন্যপদ ছিল ১১,০৪০, এবং ওবিসিদের ২০,০৪৪টি। এরমধ্যে এসসিদের জন্য ৬১৮৬ টি এসটিদের ৪,১৩৭টি ও ওবিসিদের ৯,১৮৫টি ব্যাকলগ শূন্যপদ পূরণ করা হয়েছে।