জাতীয় পরীক্ষা সংস্থা বা এনটিএ ইতিমধ্য়েই সর্বভারতীয় মেডিক্যাল পরীক্ষা বা এনইইটি ২০২০ জন্য অ্যাডমিট কার্ড প্রকাশ করেছে। সংস্থার ওয়েবসাইট থেকে তা ডাউনলোড করে নিতে হবে পড়ুয়াদের।  আগামী ১৩ সেপ্টেম্বর নিট পরীক্ষা গ্রহণ করা হবে। তবে করোনভাইরাসের সংক্রমণের কারণে এর আগেও বেশ কয়েক বার পরীক্ষা স্থগিত রাখা হয়েছে। জেইই মেইন পরীক্ষা গ্রহণ করা হবে ১-৬ সেপ্টেম্বরের মধ্যে। 

অন্যদিনে এদিনই জাতীয় পরীক্ষা স্থংস্থা বা এনটিএ নিট ও জেইই পরীক্ষা জন্য একটি গাইডলাইন প্রকাশ করেছে। নিট ও জেইই পরীক্ষা জন্য যে গাইডলাইন পরীক্ষার্থীদের অনুসরণ করতে হবে তা হলঃ

পরীক্ষার্থীদের সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখাতে হবে
সামাজিত দূরত্ব বজায় রাখার জন্য আসন পরিকল্পনা করা হয়েছে
নির্ধারিত সময় পরীক্ষার্থীদের পরীক্ষা কেন্দ্রে রিপোর্ট করতে হবে 
পরীক্ষাকেন্দ্রের ভিতরে কর্তব্যরত কর্মী ও শিক্ষকদের গ্লাভস ও মাস্কের ব্যবহার বাধ্যতামূলক
প্রয়োজনে পরীক্ষার্থীদের গ্লাভস মাস্ক সরবরাহ করা হবে
প্রবেশ কেন্দ্র ও  পরীক্ষা হলেও হাত স্যানিটাইজ করতে হবে
ডেস্ক টেবিল ও দরজার হাতল জীবাণু মুক্ত করার জন্য স্যানিটাইজার স্প্রে করতে হবে 
পুরো পরীক্ষা কেন্দ্রও স্যানিটাইজ করা হবে 
তাপমাত্রা মাপার জন্য থার্মো গানের ব্যবহার বাধ্যতামূলক 
ছাত্র ও ছাত্রীদের জন্য পৃথক লাইনের ব্যবস্থা করতে হবে। একটি লাইনে মাত্র ২০ জন পরীক্ষার্থী দাঁড়াতে পারবে
লম্বা হাতলযুক্ত মেটাল ডিরেক্টর দিয়ে পরীক্ষা করা হবে

চিনকে জবাব দিতে সেপ্টেম্বর থেকেই চালু 'অটল ট্যানেল', মানালি-লে সুড়ঙ্গপথে চোখ রাখুন আপনিও

নিট ও জেইই স্থগিত রাখার পক্ষেই সওয়াল মমতার, সুপ্রিম কোর্টে যাওয়ার আবেদন মুখ্যমন্ত্রীদের কাছে ...
মহামারির এই আবহে জেইই ও নিট পরীক্ষা স্থগিত রাখার দাবিতেই সরব হয়েছে পড়ুয়াদের একটি অংশ। পরীক্ষার্থীদের পাশে দাঁড়িয়েছে রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এই রাজ্যে এখনও ট্রেন পরিষেবা শুরু হয়নি। বাস পরিষেবাই প্রয়োজনের তুলনায় অপ্রতুল। তাই পরীক্ষা গ্রহণ করা হয়ে সংক্রমণের আশঙ্কা বাড়তে বলেই মনে করেছেন অনেকে।