সামনেই দীপাবলি। দীপাবলিতে আতসবাজি ফাটানোর বিষয়ে বিভিন্ন বিজিনিষেধ জারি করেছে আদালত। কিন্তু, ভারতীয় সেনা প্রধান বিপিন রাওয়াত শুক্রবার বিকেলে একটি বোমাই ফাটিয়ে বসলেন।

এদিন তিনি সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে সাফ জানালেন, জম্মু কাশ্মীরের সবটাই ভারতের। কাজেই জম্মু কাশ্মীর বললে পাক অধিকৃত কাশ্মীর ও গিলগিট বাল্টিস্তান-কেও ধরতে হবে। এই অংশটি ভারতের পশ্চিমি প্রতিবেশিরা বেআইনিভাবে দখল করে রেখেছে।

তবে সেনাপ্রধামনের দাবি বেআইনিভাবে দখল করার পরও এই ভারতীয় ভূখণ্ডকে পাকিস্তান নিজেদের বলে মানে না। কারণ সেখানে পাকিস্তানি প্রশাসনের কোনও নিয়ন্ত্রণই তারা কায়েম করেনি। বদলে চাষ করেছে সন্ত্রাসবাদের। সন্ত্রাসবাদীদের কারখানা বানিয়ে রেখেছে অধিকৃত কাশ্মীরে। অর্থাৎ ভারতের মাটি বেআইনি ভাবে দখল করে সন্ত্রাসের আঁতুড়ঘর বানিয়েছে পাকিস্তান।

গত রবিবারই পিওকে থেকে পাক সেনা যুদ্ধ-বিরতি লঙ্ঘন করে লাগাতার নিয়ন্ত্রণরেখার এই পারে তাঙধর সেক্টরে ভারতীয় সেনাছাউনিকে লক্ষ্য করে গোলা ছুঁড়েছিল। ভারতীয় সেনাও পাল্টা হামলা চালিয়ে চারটি জঙ্গি ঘাঁটি ধ্বংস করে দিয়েছিল। এরপরই সেনাপ্রধানের এই বক্তব্য এল। এরপর কি তবে পাক অধিকৃত কাশ্মীর পুনরুদ্ধারের চেষ্টা চালাবে ভারত? কিংবা নিয়মিত হামলা চালিয়ে জঙ্গিমুক্ত করা হবে অধিকৃত কাশ্মীর-কে? সেনাপ্রধানের বক্তব্যে কিন্তু সেই জল্পনা বাড়ছে।