নিজের নির্বাচনী কেন্দ্র বারানসীতে দাঁড়িয়ে কৃষক আন্দোলনের বিরুদ্ধে আরও একবার বার্তা দিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। পাশাপাশি কেন্দ্রীয় সরকার যে নতুন কৃষি আইন পাশ করেছে তার পক্ষেও সওয়াল করেন। তিনি বলেন,  কেন্দ্রীয় সরকারের উদ্দেশ্য গঙ্গা নদীর মতই প্রবিত্র। তাঁর সরকার কৃষকদের সঙ্গে কোনও রকম প্রতারণা করতে চায় না। পাশাপাশি  বিগত কংগ্রেস সরকারকে নিশানা করে তিনি বলেন দীর্ঘ কয়েক দশক ধরেই দেশের কৃষক সম্প্রয়াদের মানুষ প্রতারিত হয়েছে। তাই তাদের সঙ্গে  মিথ্যাচার করা হবে, আশঙ্কা তাদের মধ্যে থেকেই গেছে। তিনি বলেন, গঙ্গা নদীর তীর থেকে দাঁড়িয়ে তিনি দেশের কৃষকদের আশ্বস্ত করছেন তারঁ সরকারের তেমন কোনও অভিপ্রায় নেই। পাশাপাশি তিনি বলেন, পুরনো আইনের সঙ্গে নতুন আইনের তেমন কোনও ফারাক নেই। কেউ যদি পুরতান আইন মেনে চলতে চান তাহলেও তাদের সামনে কোনও বাধা থাকছে না। 


প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী বারানসীতে দাঁড়িয়ে কৃষি বিল নিয়ে আরও একবার নাম না করেই নিশানা করেন বিরোধী রাজনৈতিক দলগুলিকে। তিনি বলেন, এখন একটা নতুন ধারা তৈরি হয়েছে। যেখানে আকারণে আশঙ্কা তৈরি করে দেওয়ার চেষ্টা করা হচ্ছে কৃষকদের মনে। তিনি বলেন, যেকোনও জিনিসের পরিণতি নিয়ে একটি ভুল ধারনা তৈরি করে তা ছড়িয়ে দেওয়ার প্রয়াস চালান হচ্ছে। যে জিনিস কোনও দিন হবে না তা নিয়েও মিথ্যা শঙ্কা জাগানোর চেষ্টা করা হচ্ছে। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী আরও একবার নূন্যতম সহয়াক মূল্য নিয়েও কৃষকদের বার্তা দিয়েছেন। তিনি বলেছেন, খোলা বাজার মানে এই নয় যে সেখানে সরকারের নিয়ন্ত্রণ থাকবে না বা কৃষকরা এমএসপি পাবেন না। প্রধানমন্ত্রীর অভিযোগ ছিল কৃষকদের বিভ্রান্ত করার চেষ্টা করা হচ্ছে। তিনি বলেন, নতুন কৃষি আইনের মাধ্যমে কৃষকদের নতুন বিকল্প ও সুরক্ষা দেওয়ার ব্যবস্থা করেছে সরকার। 


কিন্তু এখনও পর্যন্ত বিক্ষোভকারীরা নিজেগের জিদে অনড় রয়েছে। দিল্লি সামানা এলাকায় অবস্থান বিক্ষোভে বসেছেন প্রতিবাদী কৃষকরা। রবিবার কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহর আবেদন খারিজ করে দিয়েছে বিক্ষোভকারী কৃষক সংগঠনগুলি। আন্দোলনরত কৃষকরা বুরারি পার্কে যাবেন না বলেও স্পষ্ট করে বার্তা দেওয়া হয়েছে। সিন্ধু -সহ একাধিক সীমানা এলাকায় তাঁরা জমায়েত করেছেন।