স্বেচ্ছাসেবীর বিরুদ্ধেই এবার মানহানির মামলা ঠুঁকল সেরাম ইনস্টিটিউ  অব ইন্ডিয়া। পুনের এই সংস্থাটি অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয় ও অ্যাস্ট্রোজেনেকার বিকাশ করা করোনাভাইরাসের প্রতিষেধক তৈরির জন্য চুক্তিবদ্ধ হয়েছে। পাশাপাশে এদেশেও অক্সফোর্ডের করোনা টিকার ক্লিনিক্যাল ট্রায়াল চলছে এই সংস্থার উদ্যোগে। রবিবার চেন্নাইয়ের এক স্বেচ্ছাসেবী দাবি করেছিলেন কোভিশিল্ড নেওয়ার পরেই তিনি অসুস্থ হয়ে যান। মাথা ঘুরতে থাকে আর বমি শুরু হয়ে যায়। পরিস্থিতি এতটাই খারাপ ছিল যে তাঁকে হাসপাতালে ভর্তি হতে পারে। ওই স্বেচ্ছাসেবী নোটিশ পাঠিয়ে ক্ষতিপূরণ হিসেবে ৫ কোটি টাকা দাবি করেন।পাল্টা সেরাম ১০০ কোটি টাকার মানহানির মামলা করেছে। 

এই ঘটনা সামনে আসার ২৪ ঘণ্টার মধ্যেই সংশ্লিষ্ট স্বেচ্ছাসেবীর বিরুদ্ধে মানহানির মামলা দায়ের করছে সেরাম ইনস্টিটিউট। সংস্থার পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, স্বেচ্ছাসেবীর দাবি পুরোপুরি বিদ্বেষমূলক। ভুল ধারনার বশবর্তী হয়ে এজাতীয় অভিযোগ করেছেন তিনি। স্বেচ্ছাসেবীর শারীরিক অবস্থার প্রতিও সহানুভূতি জানান হয়েছে। পাশাপাশি বলা হয়েছে টিকা গ্রহণের জন্য এজাতীয় সমস্যা দেখা দেয়নি। ট্রায়াল রানের সঙ্গে স্বেচ্ছাসেবীর শারীরিক অবস্থার অবনতি হওয়ার কোনও সম্ভাবনা নেই বলেও জানান হয়েছে। 

 

আবারও কি জারি হতে পারে লকডাউন, জল্পনা বাড়াচ্ছে করোনা নিয়ে শুক্রবার প্রধানমন্ত্রীর সর্বদলীয় বৈঠক ...

ব্রহ্মপুত্র নদের ওপর বাঁধ দিতে পারে চিন, তিব্বতে জলবিদ্যুৎ প্রকল্পের কতটা প্রভাব পড়বে ভারতে ...

গত পয়লা অক্টোবর চেন্নাইয়ের বাসিন্দা ৪০ বছরের ব্যবসায়ী  করোনাভাইরাসের প্রতিষেধক কোভিশিল্ড টিকা গ্রহণ করেছিলেন। তৃতীয় পর্যায়ের ট্রায়ালে তাঁকে টিকা দেওয়া হয়েছিল। তাঁর স্ত্রী ও দুই সন্তান রয়েছে। টিকা করণের পর থেকেই স্নায়বিক ও মানসিক সমস্যার মুখোমুখি হতে হচ্ছে বলে দাবি করেন তিনি। আর সেই কারণেই ক্ষতিপুরণ দাবি করেছেন তিনি। ড্রাগস কন্ট্রলার জেনারেল অব ইন্ডিয়া ও এথিক্স কমিটি স্বেচ্ছাসেবীদের সমস্যাগুলি পরীক্ষা করা করে দেখেছে। সংশ্লিষ্ট স্বেচ্ছাসেবীর বিষয়টি এখনও বিচার প্রক্রিয়ার অধীন রয়েছে। তবে প্রতিষেধকে অনুমোদন না দেওয়ার জন্য তিনি আইসিএমআরের প্রতিও আহ্বান জানিয়এছেন। তবে বিষয়টি নিয়ে এখনও পর্যন্ত মুখ খোলেনি আইসিএমআর। আক্রান্ত ব্যক্তি ভারতের সেরাম ইনস্টিটিউ, অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয় ও অ্যাস্ট্রোজেনেকাকে নোটিশ পাঠিয়েছেন। অক্সফোর্ড ও অ্যাস্টোজেনেকার বিকাশ করা এই প্রতিষেধক তৈরির জন্য চুক্তি করেছে পুনের সেরাম ইনস্টিটিউট।