করোনাভাইরাস মহামারির সতর্কতার মধ্যেই ভারতে শুরু হয়ে গেল উৎসবের মরসুম। শনিবার থেকেই শুরু হয়ে গেল হিন্দুদের নয় দিনের উত্সব নবরাত্রি। নবরাত্রির প্রথম দিনটিতে সারা দেশের বিভিন্ন মন্দিরে ভক্তদের বিশেষ প্রার্থনা করতে সমবেত হতে দেখা গিয়েছে। যা দেখে আঁতকে উঠেছে চিকিৎসক মহল। কিন্তু, উৎসব উদযাপনে কোনও খামতি দেখা যায়নি।

নবরাত্রি আসলে অশুভের বিরুদ্ধে শুভশক্তির জয়। নবরাত্রির নয়দিনে, নয় অবতারে দেবী দুর্গার আরাধনা করা হয়। দেবী দুর্গা ও রাক্ষস রাজা মহিষাসুরের মধ্যে সংঘটিত যুদ্ধ, এবং সেই যুদ্ধে দেবীশক্তির কাছে মহিষাসুরের অহঙ্কারের পরাজয়ই এই উৎসবের মূল উপজীব্য।

উৎসব শুরুর প্রথম দিনটিতে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী দেশবাসীকে শুভেচ্ছা জানিয়েছেন। এদিন একটি টুইট করে প্রধানমন্ত্রী বলেছেন, 'নবরাত্রির প্রথম দিনে মা শৈলপুত্রীকে প্রণাম জানাই। তাঁর আশীর্বাদে আমাদের গ্রহটি নিরাপদ, স্বাস্থ্যবান ও সমৃদ্ধ হোক। তাঁর আশীর্বাদ আমাদের দরিদ্র ও নিপীড়িত জনগোষ্ঠীর জীবনে ইতিবাচক পরিবর্তন আনার শক্তি দিক, এই কামনাই করি।'

তবে উৎসব ফদযাপনে মানুষ যাতে কোভিড বিধি মেনে চলেন, সেই ধরণের কোনও সতর্ক বার্তা এদিন দেননি প্রধানমন্ত্রী। তাতে কিছুটা হলেও হতাশ চিকিৎসক মহল। উৎসব শুরুর আগেই যেভাবে রাস্তায় সামাজিক দূরত্ব, মাস্কের বাঝধা উড়িয়ে মানুষকে ভিড় করতে দেখা যাচ্ছে, তাতে উৎসবের পর ভারতের কোভিড রোগীর সংখ্যার বিস্ফোরণ ঘটার আশঙ্কা করছেন তাঁরা। প্রধানমন্ত্রী এই বিষয়ে কোনও বর্তা না দিলেও এদিন সকালে কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রী হর্ষ বর্ধন কিন্তু সাফ জানিয়েছেন, সামনের আড়াই মাস, ভারতের সামনে কঠিন লড়াই।