কোয়াকুয়ারেলি সাইমন্ডস (কিউএস) ওয়ার্ল্ড ইউনিভার্সিটি র‌্যাঙ্কিং ২০২১ অনুযায়ী বিশ্বের শীর্ষস্থানীয় ১০০টি বিশ্ববিদ্যালয়ের মধ্যে একটিও ভারতীয় শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের নাম নেই। তবে, গত বছরের মতোই কিউএস র‌্যাঙ্কিংয়ের শীর্ষ ২০০ জনের তালিকায় স্থান পেয়েছে  আইআইটি বম্বে, ইন্ডিয়ান ইনস্টিটিউট অফ সায়েন্স বেঙ্গালুরু এবং আইআইটি দিল্লি। তবে তাদের স্থানও গত বছরের তুলনায় পিছিয়ে গিয়েছে।

এই র‌্যাঙ্কিং করা হয় ৬ টি বিষয়ের ভিত্তিতে - প্রতিষ্ঠানের খ্যাতি, শিক্ষক-শিক্ষার্থী সংখ্যার অনুপাত, শিক্ষক প্রতি শংসাপত্র, নিয়োগকর্তার খ্যাতি, আন্তর্জাতিক শিক্ষকের অনুপাত এবং আন্তর্জাতিক ছাত্রের অনুপাত।

এই সব বিষয় অনুযায়ী বিশ্বের শীর্ষ দশ বিশ্ববিদ্যালয় হিসাবে নির্বাচিত হয়েছে মূলত মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র, ব্রিটেনের প্রতিষ্ঠানগুলিই। সবার প্রথমে ম্যাসাচুসেটস ইনস্টিটিউট অফ টেকনোলজি বা এমআইটি। তারপরের দুই স্থানে রয়েছে স্ট্যানফোর্ড এবং হার্ভার্ড বিশ্ববিদ্যালয়। প্রথম দশে নাম রয়েছে সুইজারল্যান্ডের একটি প্রতিষ্ঠানেরও।

ভারতের প্রথম দশটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের মধ্যে আধিপত্য রয়েছে আইআইটিগুলিরই। দিল্লি বিশ্ববিদ্যালয় একমাত্র কেন্দ্রীয় বিশ্ববিদ্যালয় যা এই প্রথম দশের তালিকায় রয়েছে। ১১ নম্বর স্থানে রয়েছে যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়।

ভারতে কেন্দ্রীয় সরকারি, রাজ্য সরকারি, ব্যক্তিগত মালিকানাধীন বিশ্ববিদ্যালয় এবং শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের সংখ্যা ১০০০টিরও বেশি। কিন্তু, কিউএস র‌্যাঙ্কিং ২০২১-এ যে বিশ্বের সেরা যে এক হাজারটি প্রতিষ্ঠানের তালিকা তৈরি হয়েছে, তাতে ভারতের মাত্র ২১টি বিশ্ববিদ্যালয় স্থান পেয়েছে। গত বছর এই সংখ্যা ছিল ২৪। এরমধ্যে বাংলা থেকে রয়েছে তিনটি প্রতিষ্ঠান, খড়গপুর আইআইটি ও যাদবপুর ছাড়া আছে কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়-ও।

কিউএস র‌্যাঙ্কিংয়ে শীর্ষস্থানীয় তিনটি ভারতীয় ইনস্টিটিউটের র‌্যাঙ্কও পড়েছে। আইআইটি বম্বের স্থান ১৫২ থেকে ২০ ধাপ নেমে হয়েছে ১৭২। আইআইএসসি বেঙ্গালুরু ১৮৪ থেকে একধাপ নেমে রয়েছে ১৮৫-তে। আর আইআইটি দিল্লি ১৮২ থেকে পিছিয়ে ১৯৩তম  স্থানে এসে দাঁড়িয়েছে।