পছন্দের নেটওয়ার্ক পেতে ঠাঁয় বসে থাকতে হবে না দিনের পর দিন। এবার থেকে মাত্র পাঁচদিনেই পোর্ট করতে পারবেন গ্রাহকরা। পরিষেবা উন্নত করতে নতুন নিয়ম আনল টেলিকম রেগুলেটরি অথরিটি অব ইন্ডিয়া বা ট্রাই। 

এবার থেকে ঠাল  বাহানার দিন শেষ। চাইলেই পছন্দের নেটওয়ার্কে পরিবর্তন করতে পারবেন নম্বর। পোর্টের পরিষেবা পেতে দেরি হলে ব্য়বস্থা নেবে ট্রাই। আগামী ১৬ ডিসেম্বরের পর থেকেই লাগু হচ্ছে এই নতুন নিয়ম। কোনও কারণে মোবাইল নম্বর পরিবর্তনে কোম্পানি দেরি করলে দিতে হবে জরিমানা। সেক্ষেত্রে কম করে ১০ হাজার টাকা জরিমানার মুখে পড়তে হবে সংস্থাকে।

এখানেই শেষ নয়। পোর্ট করা নিয়ে টেলিকলাররা বিরক্ত করলেও সেই সংস্থার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেবে টেলিকম রেগুলেটরি অথরিটি অব ইন্ডিয়া। এবার থেকে কোনও ব্যক্তি একই নেটওয়ার্ক সার্কেলে মোবাইল নম্বর পোর্ট করতে চাইলে মাত্র তিনটি কাজের দিনেই তা সম্ভব হবে। তবে এক সার্কেল থেকে অন্য় সার্কেলে পোর্ট করাতে সময় লাগবে পাঁচটি কাজের দিন। এর অন্যথা হলেই সংস্থার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেবে ট্রাই। 

গত বছরের ডিসেম্বর মাসে এই নিয়ম নিয়ে এসেছিল ট্রাই। কথা ছিল, ২০১৯ সালের জুনের মধ্যেই লাগু হয়ে যাবে এই নিয়ম। কিন্তু বাস্তবে দেখা যায়, এই নিয়ম চালু করার কথা বললেও তা শুরু করেনি টেলিকম অপারেটররা। আগে কেউ পোর্ট করতে চাইলে কোম্পানির তরফে একটি ইউনিক পোর্টিং কোড দেওয়া হত গ্রাহকদের। এবার থেকে সেই আট ডিজিটের আলফা নিউমেরিক কোড গ্রাহককে দেবে  মোবাইল নম্বর পোর্টেবিলিটি সার্ভিস প্রোভাইডার। ফলে চাইলেও কোনও সংস্থা গ্রাহককে বুঝিয়ে নিজের কাছে রাখতে পারবে না। আগের মতোই ১৯০০-তে মেসেজ করলে পোর্টিং কোড পাবে গ্রাহক।