রিপাবলিক টিভির এডিটর ইন চিফ অর্ণব গোস্বামীকে আজ ভোররাতেই তার বাড়ি থেকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। ২০১৮ সালে একটি  পুরোনো ঘটনাকে কেন্দ্র করে ঝামেলার সূত্রপাত। ২ বছর আগে ইন্টেরিয়র ডিজাইনারের মৃত্যুর সঙ্গেই যোগসূত্র রয়েছে অর্ণব গোস্বামীর। এবং সেই সূত্র ধরে ভোররাতে আচমকাই অর্ণবের বাড়িতে ঢুকে তাকে আটক করেছে পুলিশ।

 

 

অর্ণবের বাড়িতে জোর করে মুম্বই পুলিশের প্রবেশ, এবং আগে থেকে কোনও নোটিশ না দেওয়ার কারণেই  সুপ্রিম কোর্টের আইন লঙ্ঘন করা হয়েছে বলে মনে করছেন ন্যাশনাল ইউনিয়ন অফ জার্নালিস্ট ইন্ডিয়া। এনইউজে-র বিবৃতিতে জানানো হয়েছে, লোয়ার  পারেলে অর্ণবের বাড়িতে গিয়ে  শুধু অর্ণবই নয়, তার ছেলে, বউ, শাশুড়ি, শ্বশুরকেও শারিরিক হেনস্তা করা হয়েছে।

 

 

ইতিমধ্যেই অর্ণব গোস্বামীকে নিয়ে জোর বিতর্ক শুরু হয়েছে। মুম্বই  পুলিশের বিরুদ্ধে ফুঁসে উঠে এনইউজে আরও জানিয়েছেন, ঘুমন্ত অবস্থায় কোনও নোটিশ ছাড়া অর্ণবকে আটক করে পুলিশ। খানিক সময় চেয়েও তা পাননি অর্ণব। এমনকী টেলিভিশন ফুটেজে দেখা গেছে, চিকিৎসকের সঙ্গে কথা বলার জন্য মিনতি করে অর্ণব কিন্তু তা করতে দেওয়া হয়নি। এমনকী তারপর নিজেদের ক্যামেরা বন্ধ করে দেয় ওরা। অর্ণব আইনজীবীর সঙ্গে কথা বলতে চাইলে তাও করতে দেওয়া হয় না। যা অত্যন্ত অমানবিক, হৃদয়হীন এবং অবৈধ বলে ব্যাখা করেছেন এনইউজে।