মঙ্গলবার সংবিধান দিবস উপলক্ষ্যে লোকসভা ও রাজ্যসভা মিলিযে যৌথ অধিবেশন হচ্ছে সংসদে। বক্তব্য রেখেছেন রাষ্ট্রপতি, প্রধানমন্ত্রী প্রমুখ। অথচ কংগ্রেস-সহ অধিকাংশ বিরোধী দলগুলিই এই বিরল অদিবেশন বয়কট করল। বাইরে আম্বেদকরের মূর্তির সামনে তাঁরা অভিনব উপায়ে সংবিধান দিবস পালন করলেন। বলা যেতে পারে একইসঙ্গে বিরোধীরা রথও দেখলেন, আবার কলাও বেচলেন।

এদিন মহারাষ্ট্রে 'অসাংবিধানিক' উপায়ে বিজেপি-র সরকার গঠনের প্রতিবাদ জানিয়ে কংগ্রেস, তৃণমূল-সহ বেশ কয়েকটি বিরোধী দল সংসদের সেন্টার হলে আয়োজিত যৌথ অধিবেশন বয়কট করলেন। বদলে তাঁরা সংবিধান দিবস পালন করলেন নিজেদের মতো করে, সংসদ চত্ত্বরে সংবিধান প্রণেতা বি আর আম্বেদকরের মূর্তির সামনে।

উপস্থিত ছিলেন কংগ্রেস সভানেত্রী সনিয়া গান্ধী-সহ রাহুল গান্ধী, গুলাম নবি আজাদ, একে অ্যান্টনি-সহ তাবড় কংগ্রেস নেতারা। সেখানে বিরোধী দলনেতাদের সামনে সংবিধান পাঠ করেন সনিয়া। সংবাদ সংস্থা এএনআই-কে কংগ্রেস সাংসদ শশী থারুর বলেন, মোদী সরকার একহাতে সংবিধা লঙ্ঘন করছে আরেক হাতে সংবিধান দিবস পালন করছে। আম্বেদকরের মূর্তির সামনে এরই প্রতিবাদ জানাচ্ছেন তাঁরা।

তবে, প্রশ্ন উঠছে, যৌথ অধিবেশনে যেখানে রাষ্ট্রপতি ভাষণ দিলেন, সেখানে বিরোধীদের অনুপস্থিতিও কি সাংবিধানিক কাঠামোয় আঘাত নয়? প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী মনমোহন সিং এর মতে একেবারেই নয়। তিনি জানিয়েছেন, বর্তমান প্রতিষ্ঠান সংবিধানের বিধি মানছে না এটা সকলকে মনে করিয়ে দিচ্ছেন তাঁরা।