চিনের পাশাপাশি পাকিস্তানের দিকেও কড়া নজর রাখা প্রয়োজন। তিন দিনের জম্মু ও কাশ্মীর  সফরে তেমনই ইঙ্গিত দিয়েছেন বর্ডার সিকিউরিটি ফোর্সের প্রধান রাকেশ আস্থানা। তিনি বিএসএফ জওয়ানদের বলেছেন চিন ও পাকিস্তান উভয় দেশই ভারতের বিরুদ্ধে পরিকল্পনা করছে। তাই সজাগ থাকা প্রয়োজন। তিন দিনের সফরে তিনি পুঞ্চ ও রাজৌরি সেক্টটের সীমান্তবর্তী এলাকাগুলি পরিদর্শন করেন। 

যদিও ৭৪৪ কিলোমিটার লাইন অব কন্ট্রোল রক্ষার দায়িত্ব সেনাবাহিনীর হাতে। কিন্তু বিস্তীর্ণ এলাকায় বিএসএফ জওয়ানরাই সেনাবাহিনীকে সাহায্য করে। তিন দিনের সফরে বিএসএফ এর প্রধান রাকেশ আস্থানা পুঞ্চ আর রাজৌরি সেক্টরে বিভিন্ন প্রতিরক্ষা অবস্থানগুলি পরিদর্শন করেন। একই সঙ্গে দায়িত্বপ্রাপ্ত জওয়ানদের সঙ্গে সমগ্র পরিস্থিতি নিয়ে পর্যালোচনা করেন। তাঁর সঙ্গে ছিলেন এসডি পানওয়ার ও বেশ কয়েকজন আধিকারিক। 

 অপারেশনাল প্রস্তুতি আর পরিস্থিতি সম্পর্কে সেনা কর্তাদের সঙ্গে প্রয়োজনীয় আলোচনা করেছেন বলেও সূত্রের খবর। আধিপত্য বজায় রাখার পাশাপাশি সেনাবাহিনীর যে সব পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে সেগুলিকে স্বাগত জানিয়েছেন তিনি। পাশাপাশি আগামী পরিকল্পনা নিয়েও একাধিক বৈঠক করেছেন বলেও সূত্রের খবর। একই সঙ্গে দেশের সমস্ত সুরক্ষা বাহিনী যাতে ঐক্যবদ্ধভাবে কঠিন পরিস্থিতি মোকাবিলা করতে পারে সেদিকেও জোর দেন রাকেশ আস্থানা।

জম্মুতে বিএসএফ-এর পালৌরা ক্যাম্পে একটি অনুষ্ঠানে রাকেশ আস্থানা চিনের পাশাপাশি পাকিস্তানের বিরুদ্ধে সতর্কতা অবলম্বনের পরামর্শ দিয়েছেন। আর যদি দুই দেশ কোনও অগ্রাসী পদক্ষেপ গ্রহণ করে তাহলে বিএসএফ-এর ভূমিকা গুরুত্বপূর্ণ হয়ে যাবে বলেও তিনি মনে করিয়ে দিয়েছেন। একই সঙ্গে তিনি বলেন গোটা দেশের সুরক্ষা বাহিনীর সামনে বর্তমানে খুব কঠিন চ্যালেঞ্জ রয়েছে। আর সেই চ্যালেঞ্জের মোকাবিলা করতে ঐক্যবদ্ধভাবে লড়াইয়ের প্রয়োজন রয়েছে। 

"