পূর্ববর্তী জম্মু ও কাশ্মীর রাজ্যের অংশ ছিল গিলগিট-বালতিস্তান। আর সেই জায়গাই অবৈধভাবে দখল করেছিল পাকিস্তান। এতদিন স্বশাসিত অঞ্চল হিসাবে এই জায়গার উপর অধিকার কায়েম রাখার পর বর্তমানে এই এলাকা তারা পুরোপুরি একটি পাক প্রদেশ হিসাবে দখল করতে চাইছে। শীঘ্রই সেখানে প্রাদেশিক নির্বাচন-ও করতে চলেছে তারা। মঙ্গলবার এই বিষয়ে তীব্র প্রতিবাদ জানিয়ে এর পিছনে পাকিস্তানের আসল উদ্দেশ্যটা আন্তর্জাতিক ক্ষেত্রে ফাঁস করে দিল ভারত।

বিতর্কিত গিলগিট-বালতিস্তান অঞ্চলে পাক সরকারের নির্বাচন আয়োজন এবং এলাকাটিকে পাকিস্তানের পঞ্চম প্রদেশে পরিণত করার কুট পরিকল্পনার বিরোধিতা করে ভারত মঙ্গলবার বলেছে, ইসলামাবাদ অবৈধভাবে দখল করা কোনও অঞ্চলের 'বস্তুগত পরিবর্তন' করতে পারে না। পাকিস্তান সরকারের কাছে এই বিষয়ে তীব্র প্রতিবাদ জানিয়ে ভারত সরকারের বিদেশ মন্ত্রক।

তারা বলেছে, তথাকথিত গিলগিট ও বালতিস্তান অঞ্চল জম্মু-কাশ্মীর ও লাদাখেরই অংশ এবং ১৯৪৭ সালের সম্মতি অনুযায়ী ভারতের একটি অবিচ্ছেদ্য অঙ্গ। পাকিস্তান সরকারের অবৈধভাবে এবং জোর করে এই অঞ্চল দখল করেছে, তাই এখানে নির্বাচন আয়োজনের তাদের কোনও এক্তিয়ার নেই। ভারত সরকার গিলগিট-বালতিস্তান নিয়ে পাক সরকারের সাম্প্রতিক পদক্ষেপগুলিকে সম্পূর্ণভাবে প্রত্যাখ্যান করেছে।

কেন এই জাতীয় পদক্ষেপগুলি নিচ্ছে পাক সরকার? পিছনের গোপন অভিসন্ধিও আন্তর্জাতিক মহলের কাছে ফাঁস করে দিয়েছে ভারত। ভারত সরকারের বিবৃতিতে বলা হয়েছে এই পদক্ষেপগুলি আসলে 'প্রসাধনী'। গত সাত দশক ধরে জম্মু-কাশ্মীর ও লাদাখের বেশ কিছু এলাকা পাকিস্তান অবৈধভাবে দখল করে রেখেছে। পাকিস্তান অধিকৃত অঞ্চলগুলির বাসিন্দাদের মানবাধিকার লঙ্ঘন, শোষণ করেছে পাকিস্তান, কেড়ে নিয়েছে স্বাধীনতা। এইসব অপরাধ এখন এই 'প্রসাধনী' পদক্ষেপগুলি দিয়ে গোপন করার চেষ্টা চলছে।