দুদিন আগেই পাকিস্তানের যুদ্ধবিরতি লঙ্ঘনের মুখের উপর জবাব দিয়েছিল ভারতীয় সেনা। কিন্তু তাতেও পাকিস্তানের কোনও শিক্ষা হয়নি। মঙ্গলবার সকাল থেকেই ফের যুদ্ধবিরতি লঙ্ঘন করে ব্যাপক গোলাগুলি ছোড়া শুরু হয়েছে সীমান্তের ওইপাড় থেকে।

মঙ্গলবার, জম্মু-কাশ্মীরের মেন্ধরের বালাকোট সেক্টরে নিয়ন্ত্রণরেখা বরাবর ভারী বন্দুক ও কামান থেকে গোলা ছুড়ছে। এখনও কোনও  হতাহতের খবর আসেনি। তবে ওই এলাকার বেশ কিছু বসতবাড়ির ক্ষতি হয়েছে। ক্ষতি হয়েছে ফসলের গোলা, গবাদি পশুরও। সোমবারও অবশ্য পুঞ্চ সেক্টরের কাসবা ও কিরনি-তে একইভাবে গোলাবর্ষণ করেছিল পাক রেঞ্জাররা।

তার আগে গত শনিবার গভীর রাত থেকে তাঙধর সেক্টরে একইভাবে যুদ্ধবিরতি লঙ্ঘন করে আক্রমণ করেছিল পাক সেনা। পরদিন রবিবার তার সমুচিত জবাব দিয়েছিল ভারতীয় সেনা। পাক অধিকৃত কাশ্মীরের নীলম ভ্যালি-তে হামলা চালিয়ে অন্তত চারটি জঙ্গি ঘাঁটি উড়িয়ে দিয়েছিল ভারতীয় সেনা।

কিন্তু তারপরেও শিক্ষা হয়নি পাক সেনার। যুদ্ধবিরতি লঙ্ঘনের আড়ালে আসলে জম্মু ও কাশ্মীরে জঙ্গি অনুপ্রবেশ ঘটাতে চাইছে পাকিস্তান। কাশ্মীরে ৩৭০ ধারা বাতিলের পর থেকেই এই অপচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে তারা বলে জানিয়েছিলেন ভারতীয় সেনাপ্রধান জেনারেল বিপিন রাওয়াত। সেনার পক্ষ তাঙধরের মতো বালাকোটেরও কোনও জবাব দেওয়া হয় কিনা, সেটাই এখন দেখার।