সোমবার আবারও চিনা সেনা ভারতীয় ভূখণ্ডে প্রবেশের চেষ্টা করেছিল।  চিনের পিপিলস লিবারেশন আর্মির সদস্যদের প্রতিহত করতে গিয়ে সতর্কতা মূলক গুলি চালায় ভারত। পাল্টা চিনা সেনাও গুলি চালিয়েছিল বলে অভিযোগ। সোমবারে প্যাংগং গড পাও পাহাড় দখল করতে আসা  যুদ্ধবাজ চিনা সেনার সেনার একটি ছবি ইতিমধ্যেই ভাইরাল নেটদুনিয়া। আর সেই ছবিতে দেখা যাচ্ছে চিনা সেনারা মধ্যযুগীয় অস্ত্র নিয়ে ভারতীয় বাহিনীর সামনে হাজির হয়েছিল। ছবিতে দেখা যাচ্ছে প্রত্যেক চিনা সেনার হাতে রয়েছে একটি বর্ষা। আর রয়েছে রাইফেলও। ছুরির মত ধারাল অস্ত্রও ছিল তাদের সঙ্গে। যে ছবিটি আপনি দেখছেন সেটি রেজাঙ্গ লা ও মুখপাড়ির কাছে একটি পাথুরে এলাকা। এটি ভারতীয় অবস্থানের খুব কাছে। 


সেনা বাহিনী সূত্রে জানা গেছে ওই এলাকায়  বেশ কয়েক পাহাড়ে অবস্থান করছে ভারতীয় সেনা। যেগুলি ভারতীয় ভূখণ্ডের মধ্যেই পড়ে। আর চিনাদের লক্ষ্য ছিল রেচিং লা-রেজাংলা-মুখপাড়ি ও দক্ষিণ প্যাংগং-এর মাগার হিলের মাঝামাঝি এলাকায় ভারতীয়দের দখলে থাকা পর্বতমালাটি। তবে চিনারা এগিয়ে এলে প্রতিহত করে ভারত। প্রথমেই ভারতীয় সেনারা চিনা সেনাদের লক্ষ্য করে গুলি চালায়নি। প্রথমে চিৎকার করে হুঁশিয়ার করেছিল। কিন্তু নাছোড় চিনা সেনারা আরও এদিয়ে আসতে চাইলে তারপরই সতর্কতামূলক গুলি ছোঁড়ে ভারতীয় জওয়ানরা। 

একটি সূত্র বলছে, এভাগেই গত ২০ জুন গালওয়ানে অনুপ্রবেশের চেষ্টা করেছিল চিনা সেনা।  ভারতীয় জওয়ানরা চিনা সেনার প্রচেষ্টা প্রতিহত করেছিল। কিন্তু তার বদলে ২০ জওয়ানের প্রাণ গিয়েছিল। তর গত অগাস্টেও চিনা সেনা ভারতীয় জওয়ানদের লক্ষ্য করে উস্কানিমূলক আচরণ করেছিল এই প্যংগং এলাকায়। কিন্তু ভারত তা প্রতিহত করে। এবারও ভারচীয় সেনাদের সঙ্গে সমুখ সমরে পিছু হাঁটতে হল চিনা সেনাদের। কিন্তু চিনা সেনার এই আচরণে রীতিমত অবনতিতে ঠেকছে দুই দেশের সম্পর্ক। অন্যদিকে সীমান্ত পরিস্থিতি নিয়ে দুই দেশের ব্রিগেডিয়ারা ইতিনমধ্যেই হটলাইনে কথা বলেছেন। সূত্রের খবর দুই দেশের ব্রিগেডিয়াররা একে অপরকে দোষারোপ করেছে সোমবারের প্যাংগং সীমান্তের উত্তেজনা নিয়ে।
"