ইতিমধ্যেই কাজ শুরু হয়ে গিয়েছে পুরো দমে। সবকিছু ঠিকঠাক থাকলে আগামী দশ বছরের মধ্যেই বিশ্বের প্রথম সবুজ রেলওয়ে হবে ভারতের বুকেই। রেলমন্ত্রী পীযুষ গোয়েল জানিয়েছেন, ভারতীয় রেলকেই বিশ্বের প্রথম পরিবেশবান্ধব রেলপথ হিসাবে গড়ে তোলার পথে কেন্দ্র। 

এই বিষয়ে রেলমন্ত্রী আশা প্রকাশ করেছেন  যে, আগামী এক দশকের মধ্যেই ভারতীয় রেলপথ হবে দেশের সর্বপ্রথম পরিবেশবান্ধব রেলপথ। তবে এই লক্ষ্যে পৌঁছাতে হলে কী কী ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে ভারতীয় রেলের তরফ? দেশের সমস্ত রেলপথের বৈদ্যুতিকরণের ব্যবস্থা করা হবে বলে জানা গিয়েছে। এর পাশাপাশি ডিজেল চালিত রেলগুলিকে বায়োডিজেলে পরিণত করার প্রচেষ্টাও তালানো হচ্ছে বলে জানা গিয়েছে। 

আরও জানা গিয়েছে, একশো শতাংশ বৈদ্যুতিকরণের জন্য প্রয়োজন হতে পারে  অতিরিক্ত বিদ্যুৎ। এই অতিরিক্ত বিদ্যুতের চাহিদা মেটাতে সৌরশক্তিকে কাজে লাগানো হবে বলেও জানা গিয়েছে। আর এই অতিরিক্ত বিদ্যুতের চাহিদা মেটাতে পারবে একমাত্র সৌরশক্তিই। আরও জানা গিয়েছে ২০২২ সালের মধ্যেই সম্পূর্ণ রেলওয়ে ব্যবস্থার  বৈদ্যুতিকরণ হবে। 

এদির রাজ্যসভায়, রেলমন্ত্রী আরও জানান যে, ডিজেলের ব্যবহার কমাতেই রেলের বৈদ্যুতিকরণের ওপর বিশেষ নজর দেওয়া হচ্ছে। তবে তিনি আরও জানিয়েছেন, কিছুদিন আগে প্রকাশিত সাধারণ বাজেটে ডিজেলের দাম বাড়ানো হলেও এখনই রেলের ভাড়া বাড়ানোর সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়নি।